প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আ. লীগ-বিএনপিতে হবে আশাতীত হাড্ডাহাড্ডি

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দলের জন্য সমান সুযোগ ‘অনুপস্থিত’। বিজ্ঞজনদের অনেকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পুনর্নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখলেও শেষ পর্যন্ত বড় দুই দলের মধ্যে প্রত্যাশাতীত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে। গত বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ কমনস সভার লাইব্রেরি থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশ নিয়ে নভেম্বর মাসের ব্রিফিং পেপারে এ কথা বলা হয়েছে।

জানা গেছে, ব্রিটিশ পার্লামেন্ট সদস্যদের (এমপি) অন্য দেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করতেই বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে এ ধরনের ব্রিফিং পেপার নিয়মিত প্রকাশ করা হয়। কয়েক বছর আগেই এমন ব্রিফিং পেপারে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা ও সম্ভাব্য সাজার কারণে তাঁর আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণে অনিশ্চয়তার কথা বলা হয়েছিল।

বাংলাদেশ নিয়ে নভেম্বর মাসের ব্রিফিং পেপারে আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট ও বাংলাদেশের ওপর রোহিঙ্গা সংকটের প্রভাব গুরুত্ব পেয়েছে।

ব্রিফিং পেপারে বলা হয়, বাংলাদেশে রাজনৈতিক উত্তাপ সব সময় চড়া থাকে। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে এই উত্তাপ আরো বেড়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনে তাঁর অংশগ্রহণ, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা—এসব দাবি পূরণ না হওয়ার পরও বিএনপি এবার নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ‘অনেকে মনে করে, বিএনপি অংশ নিলে নির্বাচন আরো বিশ্বাসযোগ্য হবে। তবে সবার জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি হয়নি’—এমনটিই বলা হয়েছে ব্রিফিং পেপারে।

এ ছাড়া নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পূর্ণ মিশন না পাঠানোর সিদ্ধান্তকে নির্বাচন নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আশঙ্কার ইঙ্গিত বলে ব্রিটিশ কমনস সভার লাইব্রেরির বিফ্রিং পেপারে উল্লেখ করা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, কমনওয়েলথ এখনো নির্বাচন পর্যবেক্ষক পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা কালের কণ্ঠকে বলেছেন, কমনওয়েলথ থেকে পর্যবেক্ষকদের আসার কথা রয়েছে।

বিশ্লেষকদের বরাত দিয়ে ব্রিফিং পেপারে বলা হয়েছে, অনেকেই মনে করে যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসবে। কিন্তু এর আগে যেমন ধারণা হয়েছিল, শেষ পর্যন্ত দুই পক্ষের প্রতিদ্বন্দ্বিতা তীব্র হতে পারে। এতে আরো বলা হয়, বিএনপি নিজেদের অসাম্প্রদায়িক তকমা দিতে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছে। বিএনপির ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক মিত্র জামায়াতে ইসলামী নিজ পরিচয়ে ও প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিতে পারছে না। আওয়ামী লীগ দাবি করেছে, বিএনপি জামায়াতে ইসলামীকে সমর্থন দিচ্ছে। আবার একইভাবে অসাম্প্রদায়িক দল হিসেবে পরিচিত আওয়ামী লীগ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে রক্ষণশীল ইসলামী গোষ্ঠী, বিশেষ করে হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে ‘সম্পর্ক’ গড়ে তুলেছে।

মাদকবিরোধী অভিযানে হতাহতের ঘটনা, ছাত্র আন্দোলন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এবং জঙ্গি হামলার ঝুঁকি কমার প্রসঙ্গও এই ব্রিফিং পেপারে এসেছে।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী মার্ক ফিল্ড গত ২১ নভেম্বর পার্লামেন্টে প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও বহু দলের

অংশগ্রহণে নির্বাচন দেখার প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট গত ২৪ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতে আগামী নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন বলে ব্রিফিং পেপারে উল্লেখ রয়েছে।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রসঙ্গে ব্রিফিং পেপারে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপের মুখে গত নভেম্বর মাসে প্রত্যাবাসন শুরুর উদ্যোগ থমকে গেছে। আগামী বছরের আগে প্রত্যাবাসনের উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না।
সূত্র :কালের কন্ঠ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত