প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আনিসুল হকের মৃত্যুর এক বছর
ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি উত্তর সিটি কর্পোরেশন

শাকিল আহমেদ : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যু এক বছর পাড় হলেও এখন ঘুড়ে দাড়াতে পাড়েনি সংস্থাটি। থমকে আছে আনিসুল হকের নেয়া উন্নয়ন পরিকল্পনা। শুরু করে যাওয়া কাজগুলোও চলছে ধীরগতিতে।

২০১৫ সালের এপ্রিলে ডিএনসিসির মেয়র হিসেবে শপথ নেয়ার পর বেশ কিছু নাগরিকবান্ধব উদ্যোগ নিয়েছিলেন আনিসুল হক। কিছু উদ্যোগে সফলতাও পেয়েছিলেন। তার হাত ধরে বদলে যেতে শুরু করেছিলো ডিএনসিসির উন্নয়ন কর্মকান্ড। কিন্তু গত বছরের আজকের এই দিনে (৩০ নভেম্বর) তার অকাল মৃত্যুর সাথে সাথে সব কিছুই যেন থমকে গেছে।

আনিসুল হকের নেয়া উদ্দ্যোগগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিলো-গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে নগরীতে সাড়ে চার হাজার বাস সার্ভিস চালু করা, তেজগাঁও সাতরাস্তা থেকে ফার্মগেট রেলগেট পর্যন্ত সড়কের অবৈধ ট্রাকস্ট্যান্ড উচ্ছেদ, কাওরান বাজার থেকে কাচাঁবাজার স্থানান্তর। আমিন বাজার থেকে শ্যামলী সড়ক পার্কিং-ফ্রি ঘোষণা, মহাখালীতে ডিএনসিসির উইমেনস হলিডে মার্কেট, হয়রানি রোধে ঠিকাদারদের বিল অফিসে পৌঁছে দেওয়া, ডিএনসিসি এলাকায় ৩৯ হাজার ৬০০ এলইডি বাতি লাগানো, বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আমিন বাজার ল্যান্ডফিল সম্পসারণ, হাতিরঝিলের আদলে রামপুরা খালের পরিবর্তন করাসহ সবুজ ঢাকা গঠনে নগরজুড়ে ‘গ্রিন ঢাকা’ নামে একটি প্রকল্পও হাতে নিয়েছিলেন তিনি।

এদিকে তার শুরু করে যাওয়া কাজগুলো চলছে ঢিমেতালে। মেয়র নির্বাচনের পর আনিসুল হক তেজগাঁওয়ের সাতরাস্তা থেকে ফার্মগেটের রেলগেট পর্যন্ত সড়কটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছিলেন। কিন্তু তার মৃত্যুর পর সড়কটি আবারও ট্রাকস্ট্যান্ডে পরিণত হয়েছে। শুধু ট্রাকস্ট্যান্ড নয়, দখল হয়ে গেছে পার্কিংমুক্ত আমিনবাজার থেকে শ্যামলী পর্যন্ত সড়কটি। বার বার সময় পেছানোর পরও আলোর মুখ দেখেনি এলইডি বাতি প্রকল্প। শুধু পরিকল্পনার মধ্যে আটকে আছে ডিএনসিসির নতুন ৮ ইউনিয়নের উন্নয়ন। এছাড়া ১ হাজার ২৬ কোটি টাকা ব্যয়ে (আইডিআইপি) বর্তমানে ডিএনসিসির চলমান সবচেয়ে বড় প্রকল্প চলমান রয়েছে। তবে মিরপুর ১০,১১,১২ ও ১৩ নম্বর এলাকা ঘুরে দেখা যায় ধীরগতিতে চলছে এ প্রকল্পের কাজ। প্রশ্ন উঠেছে কাজের মান নিয়েও।

তবে বড় কোন কাজ করতে গেলে সময় বেশি লাগে উল্লেখ করে ডিএনসিসির ভারপ্রাপ্ত মেয়র মো. জামাল মোস্তফা বলেন, আনিসুল হকের মৃত্যুর পর কোন কাজই থেমে নেই। তার শুরু করে যাওয়া কিছু কাজ শেষ হয়েছে, কিছু কাজ চলমান রয়েছে। এলইডি বাতির নতুন ডিপিপি মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। কারওয়ান বাজার কাচাঁ বাজার মহাখালি ও আমিন বাজারে স্থানান্তর করার বিষয়ে ব্যবসায়িদের সাথে আলোচনা চলছে। বর্তমানে দেশে নির্বাচন অমেজ তাই নির্বাচন কমিশনের কিছু বিধি নিষেধের কারনে নতুন কোন প্রকল্প শুরু করতে পাড়ছিনা। সম্পাদনা: খোকন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ