প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পুলিশ ও নির্বাচন কমিশন ওবায়দুল কাদেরের : তৈমুর আলম

মারুফুল আলম : বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বলেছেন, নির্বাচন কমিশনও ওবায়দুল কাদেরের, পুলিশও ওবায়দুল কাদেরের। আর বিএনপি যা বলবে সবই মিথ্যা। বিএনপির সবকিছু নির্বাচন কমিশনে গিয়ে বলতে হবে। ‘কোথায় কোথায় কাকে কাকে বাধা দেয়া হয়েছে তা বিএনপি সুনির্দিষ্টভাবে নির্বাচন কমিশনে বলুক’ ওবায়দুল কাদেরের এই বক্তব্যের জবাবে বৃহস্পতিবার ডিবিসি নিউজ এর টক’শোতে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সংলাপের সময় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘আপনাদের বিরুদ্ধে যেসব মামলা হচ্ছে তার তালিকা দেন।’ আমি সেখানে থাকলে বলতাম, তালিকাতো আপনার কাছে। কারণ আপনার নির্দেশেই মামলা হচ্ছে।

যুদ্ধাপরাধীদের ছেলেদেরকে নমিনেশন দেওয়া হচ্ছে কেন জানতে চাইলে অ্যাডভোকেট তৈমুর বলেন, যে সাইদী মুক্তিযুদ্ধের সময় এত অপরাধ করলো, এত ধর্ষণ করলো, এত বাড়ী জ্বালালো তার ছেলে এই আমলে উপজেলা চেয়ারম্যান হলো কিভাবে? সরকারের সাথে আঁতাত করে হয়েছে? নাকি জনপ্রিয়তার কারণে হয়েছে? এখন প্রশ্নটা হলো পিতার অপরাধের জন্যতো পুত্রকে দায়ী করা যাবে না।

অ্যাডভোকেট তৈমুর আরো বলেন, আগে আওয়ামী লীগের নেতারা আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দিতো। এখন আওয়ামী লীগের নেতারা মামলা দেয় না, এখন মামলা দেয় পুলিশ। অথচ পুলিশ হচ্ছে রাষ্ট্রীয় কর্মচারী, তাই রাষ্ট্রের কাছে তাদের দায়বদ্ধতা থাকার কথা। তারপরও তারা মামলা দিচ্ছে। এমন সেকশনে মামলা দেয়া হচ্ছে, যেখানে মামলা প্রমাণ হলে মৃত্যুদন্ড হবার সম্ভাবনা থাকে। এরপরও পুলিশের হাত কাঁপছে না। এটা কি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড? নাকি এটা ইনসাফ?

প্রধান বিচারপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বলেন, বিচার বিভাগ এসব বিষয় যদি না দেখে, তাহলে সব হরিলুট হয়ে যাবে। বিএনপিতো কথাও বলতে পারছে না।

৩০০ আসনে বিএনপি ৮০০ প্রার্থী কেন দিয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার কার নমিনেশন কখন বাতিল করে, কাকে গ্রেফতার করে অথবা কাকে কোন বিপদে ফেলে দেয় এটা বলা যায় না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ