প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘জামায়াতের ভেতর মুক্তিযোদ্ধা আছে, জাতির চোখে ধূলো দেয়া এমন মন্তব্য’

হ্যাপি আক্তার : ‘জামায়াতের ভেতর মুক্তিযোদ্ধারাও আছে’ বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্য জাতিকে চোখে ধুলো দেয়া’ বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তাদের দাবি, জামায়াত থাকলে জোট করবেন না বলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা যে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়।

বিএনপি’র সঙ্গে ঐক্য গড়তে ড. কামাল হোসেন ও অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতাদের শর্ত ছিলো, ২০ দলীয় জোটের শরিক যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত জামায়াতকে ঐক্য থেকে দূরে রাখতে হবে।

ড. কামাল হোসেন বলেছিলেন, ‘জামায়াতের সঙ্গে কোন সম্পর্ক নাই। সেটা প্রথমেই পরিস্কার করা হয়েছে।’
অন্যদিকে নানা নাটকীয়তায় জোট গঠন হওয়ার দেড়মাস পর ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল বিএনপি, হঠাৎ করেই গত বৃহস্পতিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘জামায়াতের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধারাও আছেন।’

এমন বক্তব্যের পর রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন, বিএনপি ও এর শরিক জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, তাদের নিজেদের স্বার্থেই নির্বাচনী বৈতরণী পার হতেই যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত জামায়াতকে স্বীকৃতি দিতেই তাদের এই অবস্থান।

অধ্যাপক শফিউল আলম ভূইয়া বলেন, ‘জামায়াতের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা আছেন, এটি একটি অভিনব তথ্য। বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার স্বার্থ হিসেবেই জামায়াতকে সঙ্গে রেখেছে সবসময়। না হলে জামায়াতকে বিএনপি কীভাবে মনোনয়ন দিবে। মনোনয়ন দেয়ার আগে বিচার-বিশ্লেষণ করতে হবে। সেই বিচারের শর্ত হিসেবেই আমার ধারণা, জনগণের চোখে ধূলা দেওয়ার জন্যই এধরণের কথাবার্তা বলা হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘ঐক্যজোট যে আদর্শের কথা মুখে বলেছিলো, যে জামায়াত বিরোধির কথা বলেছিলেন, সেগুলোকে এখন শোকেসে তুলে রেখেছেন। তাদের কাছে নির্বাচনী বৈতরণী পার হওয়া গুরুত্বপূর্ণ।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ