প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ফারজানা য‌দি জ‌ঙ্গি না হয় তাহ‌লে জ‌ঙ্গি কে?’

আমাদের সময় : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) আসনে বিএন‌পি থে‌কে ম‌নোনয়ন পেয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাকিলা ফারজানা।  এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, ‘বিএন‌পি যা‌দের ম‌নোনয়ন দি‌য়ে‌ছে তা‌দের অনেকেই জ‌ঙ্গিদের সঙ্গে জ‌ড়িত।’

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

জঙ্গি সংগঠন হামজা বিগ্রেডকে অর্থায়নের অভিযোগে ২০১৫ সালের ১৮ আগস্ট রাজধানীর ধানমণ্ডি থেকে গ্রেপ্তার হন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাকিলা ফারজানা। তার সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল দুই সহকর্মী আইনজীবীকেও।

বিএন‌পি থে‌কে ম‌নোনয়নপ্রাপ্ত শা‌কিলা ফারজানা প্রস‌ঙ্গে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘ফারজানা কি জঙ্গির সা‌থে জ‌ড়িত নয়? ফারজানা য‌দি জ‌ঙ্গি না হয় তাহ‌লে জ‌ঙ্গি কে?’

জামা‌য়াতের ভেতরও মু‌ক্তি‌যোদ্ধা আছে বিএন‌পি নেতা‌দের এমন বক্ত‌ব্যের জবা‌বে তি‌নি ব‌লেন, ‘বিএন‌পির দৃ‌ষ্টি‌তে তারা সবাই মু‌ক্তি‌যোদ্ধা। তা‌দের ব্যাখ্যা বঙ্গবন্ধু মু‌ক্তি‌যু‌দ্ধের মহানায়ক নয়। তা‌দের মু‌ক্তি‌যুদ্ধ তা‌দের মনগড়া মু‌ক্তি‌যুদ্ধ।’

জামাত ছাড়া বিএন‌পি অচল এমন দা‌বি ক‌রে আওয়ামী লী‌গের এ নেতা ব‌লেন, ‘জামায়াত ছাড়া বিএনপি অচল। জামায়াত বিএন‌পি মি‌লে একাকার। তারা একসা‌থে রাজনী‌তি কর‌ছে। দেখুন ২০১৪ সা‌লে সাধারণ মানু‌ষের উপর যে হামলা চা‌লি‌য়ে‌ছে তার সা‌থে কি জামাত জ‌ড়িত ছিলো না?’

২০১৫ সালে আইনজীবী ফারজানাও তার দুই সহকর্মীজকে গ্রেপ্তারের পর একই বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি বাঁশখালীর লটমনি পাহাড়ে জঙ্গি আস্তানা ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেওয়া হয়।

এরপর হাটহাজারীর আবু বকর মাদ্রাসা থেকে ২০১৫ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি রাতে জঙ্গিদের ‘তাত্ত্বিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’ পাওয়ার ঘটনায় হাটহাজারী থানায় সন্ত্রাস ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের আরেকটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয় তাদের। কয়েকদফা রিমান্ড শেষে সর্বোচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে ২০১৬ সালের ৭ জুন কারাগার থেকে মুক্তি পান শাকিলা।

হেফাজতে ইসলামের দুই কর্মীর কথায়, ব্যারিস্টার সাকিলা ফারজানা শহীদ হামজা বিগ্রেডের সংগঠক মনিরুজ্জামান ডনের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এক কোটি আট লাখ টাকা দিয়েছিলেন বলে তার আইনজীবী আবদুস সাত্তার দাবি করেছিলেন। সে সময় শাকিলার আইনজীবী আরও জানান, হেফাজত নেতাদের সাড়ে ৩০০ মামলা পরিচালনার জন্য তাদের কাছ থেকে শাকিলা ওই টাকা পেয়েছিলেন এবং চুক্তি অনুযায়ী কাজ করতে না পারায় তা ফেরত দেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ