প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘একটি ভোট পুরো দেশকে পাল্টে দিতে পারে’

রাশেদুল ইসলাম: চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌস বলেছেন, ‘আমরা জানি প্রচুর নতুন ভোটার ভোট দিচ্ছেন এবার। এই সংখ্যা ২ কোটির উপরে। এনাদের ভেতর অনেকে আছেন যারা ১৮-১৯ বছরের। অনেক টিনেজার আছেন যারা ভাবেন আমি একটি ভোট না দিলে কী হবে। কিন্তু তাদেরকে আমাদের এটা বোঝাতে হবে যে তোমার এক একটি ভোট অসম্ভব মূল্যবান। একেকটি অস্ত্রের মতো। তোমার একটি ভোট পুরো দেশকে পাল্টে দিতে পারে।’

রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে সামাজিক সংগঠন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ এর এক সেমিনারে তিনি তরুণ ভোটারদের ভোট দিতে উজ্জীবিত করতে এসব কথা বলেন।

নায়ক ফেরদৌস বলেন,  ৩০ ডিসেম্বর ভোট দিয়ে সেলফি তুলে উদযাপন করতে। আমি টিনেজারদের বলি, তোমরা যখন একটি রেস্টুরেন্টে খেতে যাও, ঐ খাওয়ার একটা সেলফি তোলো, ওখানে একটা পোস্ট দিয়ে দাও। আমি তোমাদেরকে অনুরোধ করব, ৩০ তারিখে তোমরা সবার আগে ভোট দিবে এবং যে কালো দাগটি দেয়া হাতে দেয়া হয় সেটি সহ সেলফি তুলে পোস্ট করবে। সেটি হবে সেদিনের সবচেয়ে বড় প্রচারণা।

তিনি বলেন, এই ইয়াং ছেলে মেয়েরা অনেক বেশি ইমোশনাল অনেক বেশি লাজুক। তারা এখনো কোনো পক্ষের নয়। অনেকে আছেন ৫০-৬০ বছর বয়সী। তারা অনেকেই তাদের মতো করে তাদের পক্ষ বেছে নিয়েছেন। কিন্তু তরুণরা তা করেননি। অনেক তরুণ ভোটাররা ভাবেন যে আমার বয়স ১৮- ১৯ আমি তো স্টুডেন্ট, আমি কেন ভোট দিব। তাদেরকে এটা বোঝাতে হবে আগামী পাঁচ বছরে তাদের ভাগ্যের আমূল পরিবর্তন হবে।

এই আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন দেশের অভিনেতা, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের শীর্ষ নেতারা। আলোচকরা তরুণদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে নৌকার পক্ষে সমর্থন দেবার আহ্বান জানান। এসময় তরুণরাও আসন্ন নির্বাচনে তাদের প্রত্যাশার কথা তুলে ধরেন। সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ