Skip to main content

দেশের ১০ ভাগ মানুষ শ্বাসকষ্ট রোগে আক্রান্ত

মোহাম্মদ রুবেল : সিওপিডি বা শ্বাসকষ্টজনিত রোগকে মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। দেশের ৪০ বছরের বেশি বয়সীদের প্রায় ১০ ভাগ মানুষ এ রোগে আক্রান্ত। যারা ধূমপান করেন তাদের মধ্যে এই সংখ্যা ১২ ভাগ। আর অধূমপায়ীদের মধ্যে এই সংখ্যা তিন ভাগ। বিশ্ব সিওপিডি দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) এক বৈজ্ঞানিক সেমিনারে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। সিওপিডি সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়াতে ২০০২ সাল থেকে এই দিবসটি পালিত হচ্ছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে আসুন, সিওপিডি প্রতিরোধ করি-সুস্থ ও দীর্ঘজীবন গড়ি। সেমিনারে বক্তারা বলেন, ধূমপানের কারণেই প্রধানত মানুষ এই জটিল শ্বাসতন্ত্রের রোগে আক্রান্ত হয়। তাই সিওপিডি প্রতিরোধে তামাকের চাষ ও উৎপাদন বন্ধ করতে হবে। সিগারেট ও তামাক কোম্পানিগুলো বন্ধ হলে হ্রাস পাবে সিওপিডিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা, সেই সঙ্গে স্বাস্থ্যখাতের ব্যয়ও অনেকটাই কমে আসবে। সিওপিডি রোগীদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে ধূপমান নিরাময়কেন্দ্র, এনসিডি (নন কমিউনিকেবল ডিজিজেস) কর্নার, পালমোনারি রিহ্যাবিলেটশন সেন্টার (ফুসফুসের রোগীদের পুনর্বাসন কেন্দ্র), রেসপিরেটরি আইসিইউ ও রেসপিরেটরি ইর্মাজেন্সি প্রতিষ্ঠা জরুরি। বিএসএমএমইউ-এর উপউপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার বলেন, সিওপিডি রোগীদের চিকিৎসার ব্যয়ভার যাতে মানুষের সামর্থে মধ্যে থাকে সেটা বিবেচনায় রাখতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পালমোনারি রিহ্যাবিলেটশন সেন্টার (ফুসফুসের রোগীদের পুনর্বাসন কেন্দ্র), রেসপিরেটরি আইসিইউ, রেসপিরেটরি ইমাজেন্সি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়া হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে সিওপিডি রোগীর সংখ্যা ৮০ মিলিয়ন। বাংলাদেশে এ সংখ্যা প্রায় ১০ ভাগ। যারা ধূমপান করে তাদের মধ্যে এই সংখ্যা ১২ ভাগ। আর অধূমপায়ীদের মধ্যে এই সংখ্যা ৩ ভাগ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বক্ষব্যাধি বিভাগের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ঢাকায় ৩৫ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে ১১ দশমিক চার ভাগ মানুষ সিওপিডি রোগে আক্রান্ত। এর মধ্যে ১১ দশমিক সাত ভাগ পুরুষ এবং ১০ দশমিক ছয় ভাগ নারী। অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশরারফ হোসেন বলেন, দীর্ঘস্থায়ী এই রোগ সিওপিডি প্রতিরোধে গ্রামে-গঞ্জে পরিবেশবান্ধব চুলার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বক্ষব্যাধি (রেসপিরেটরি) বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশরারফ হোসেন। এ ছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন উপউপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপউপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান। সম্পাদনা: শাহীন চৌদুরী, হুমায়ুন কবির খোকন

অন্যান্য সংবাদ