Skip to main content

ইশতেহার নিয়ে দোলাচলে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট

সাব্বির আহমেদ : আসন্ন নির্বাচনের ইশতেহার নিয়ে এখনও সমাধানে আসতে পারেনি বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপি না ঐক্যফ্রন্ট- কোন ব্যানারে আসবে নির্বাচনী ইশতেহার, তারও কোনো চূড়ান্ত সমাধানে আসতে পারেনি সরকারবিরোধী জোট। বৃস্পতিবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার কমিটির একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। জানা যায়, ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার কমিটির পাশাপাশি বিএনপিও পৃথক একটি ইশতেহার কমিটি গঠন করেছে। বিষয়টি নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের কেউই মুখ খুলছেন না। তবে তাদের দাবি, বিএনপি আলাদা দল। তাদেরও নির্বাচনী ইশতেহার দেওয়ার অধিকার আছে। ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার কমিটির প্রধান ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এই প্রতিবেদককে বলেন, আমাকে আদালতে দৌড়াদৌড়ির কারণে বৈঠক হয়নি। বিএনপি কেনো আলাদাভাবে নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করবে-আমার ধারণা নেই। ঐক্যফ্রন্টে তো তাদের লোক আছে! তাহলে আলাদাভাবে প্রয়োজন কেনো? ফ্রন্টের ইশতেহার কমিটির সদস্য ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের নেতা অধ্যক্ষ ইকবাল সিদ্দিকী বলেন, শনিবার ফের ইশতেহার কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ইশতেহার তৈরির কাজ প্রায় শেষ। দু-একদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত হবে। আমারা ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করছি। কাজ শেষ হলে ফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির কাছে আমরা ইশতেহারের খসড়া প্রেরণ করব। বিএনপিও তাদের দলের পক্ষ থেকে ইশতেহার তৈরি করতে পারে। এটা তাদের ব্যাপার। এর আগে ২৭ নভেম্বর ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার কমিটির বৈঠকেও মাত্র তিনজন অংশ নেন। বাকি সদস্যরা মঙ্গলবারের বৈঠকে অংশ নেননি। বৈঠকেই কথা উঠে, বিএনপি আরও আগেই পৃথকভাবে একটি ইশতেহার কমিটি করেছে। ওই কমিটিও কাজ করছে। সেই কমিটিতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ রয়েছেন। এদিকে, চূড়ান্তভাবে কোন ব্যানারে নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করা হবে, এ সিদ্ধান্তও পাকা করেনি বিএনপি। জানতে চাইলে অর্থনীতিবিদ মাহবুবউল্লাহ বলেন, এসবের কিছুই আমি জানি না। আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ। আমি বলতে পারবো না।

অন্যান্য সংবাদ