প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী দল আর সাম্প্রদায়িক দল সবাই যেন এক হয়ে গেলো!

মারুফুল আলম : ফেমার প্রেসিডেন্ট মুনিরা খান বলেছেন, যারা সাম্প্রদায়িক দলগুলোকে পছন্দ করতো না, তারা সাম্প্রদায়িক দলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে এসেছে। আবার যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছাড়া কিছুই বুঝতো না, তারা বিএনপির সঙ্গে জোট করেছে, যেখানে জামায়াত আছে। বুধবার চ্যানেল আই ‘তৃতীয় মাত্রা’ অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, আদর্শ বলতে এখন কিছু নেই। নির্বাচনে জিতে পার্লামেন্টে কেমনে যাবে সেটাই প্রধান বিষয় হয়ে গেছে।

মুনিরা খান বলেন, আমাদের দেশে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আদর্শের খুব একটা পার্থক্য নেই। যদি ভালো করে লক্ষ্য করেন দেখবেন, একমাত্র বামপন্থী দল ছাড়া আমাদের অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর যদি মেনিফেস্টে দেখেন, তাহলে কয়টি জিনিস পাবেন ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা’ কথাটি বলা ছাড়া? সবাই যেন এখন এক হয়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন যদি গণতন্ত্রের উত্তরণে পৃথিবীর নানাদেশে ইলেকশন পর্যবেক্ষণ করে থাকে, তাহলে তারা নিশ্চয়ই আমাদের এটাও দেখতে পাচ্ছে যে, এবার সবার অংশগ্রহণে নির্বাচন হচ্ছে। এখন পর্যন্ত প্রত্যেকটি প্রক্রিয়া খুবই সুন্দরভাবে চলমান দেখা যাচ্ছে। সকল রাজনৈতিক দল সেই সুন্দর প্রক্রিয়ার ওপর নির্ভর করেই নির্বাচন করার জন্য নির্বাচনী কাজগুলো করে যাচ্ছে। এ বিষয়টিও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের দেখা উচিত।

মুনিরা খান বলেন, দল-বদল আমাদের দেশে নতুন কোনো বিষয় না। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর থেকে যতো দল সৃষ্টি হয়েছে বা দল-বদল হয়েছে, সব মূলত আওয়ামী লীগ থেকেই এসেছে। তখন আওয়ামী লীগ ছাড়া তো অন্য দল ছিলো না। রাজনীতিতে আদর্শের সঙ্গে সঙ্গে কিছু প্র্যাকটিক্যাল জিনিসও থাকে। তবে দল-বদলের ক্ষেত্রে আদর্শের চেয়ে দলের অবমূল্যায়নটাকেই বড় করে দেখা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ