প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঢাবিতে ‘আন্তর্জাতিক সম্পর্ক’ বিভাগ পেলেন অদম্য হৃদয় সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক : মায়ের কোলে চড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা সেই হৃদয় সরকার অবশেষে নানা জটিলতার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবন্ধী কোটার ফর্ম সংগ্রহ করতে গেলে তাকে জানানো হয়, তিনি ওই কোটার মধ্যে পড়েন না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধিতে প্রতিবন্ধী কোটায় শুধু দৃষ্টি, শ্রবণ ও বাকপ্রতিবন্ধী-এই তিন ধরণের প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে কোটা প্রযোজ্য হবে। এখানে শারীরিক বা অন্য কোন ধরণের প্রতিবন্ধীরা কোটায় ভর্তি হতে পারবেন না! অবিশ্বাস্য লড়াই করে এতদূর আসা হৃদয় এবং তার মা এমন খবরে খুব স্বাভাবিকভাবেই ভেঙে পড়েন।

একপর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী কোটার বিধিমালায় সংস্কার এনে শারীরিক প্রতিবন্ধীদেরও যুক্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ তৈরি হয় হৃদয় সরকারের। এই অদম্য স্বপ্নযাত্রায় দারুণ সাফল্যের আরেকটি ধাপ অতিক্রম হলো আজ হৃদয় ও তার মায়ের।

ভর্তি পরীক্ষায় হৃদয় সরকার বাংলা অংশে ৯ দশমিক ৩০, ইংরেজি অংশে ১৪ দশমিক ৪০ ও সাধারণ জ্ঞান অংশে ২৭ দশমিক ৯০ নম্বরসহ মোট ১২০.৯৬ নম্বর পেয়ে ৩,৭৪০তম হন ৷

সোস্যাল মিডিয়ার প্রকাশের পর  হৃদয় সরকার ও তার মমতাময়ী মা সীমা সরকার সংগ্রাম দৃষ্টি কেড়েছে দেশের সীমা ছাড়িয়ে বিদেশি মিডিয়ারও। বিবিসির করা বিশ্বের ১০০ অনুপ্রেরণাদায়ী ও প্রভাবশালী নারীর তালিকায় স্থান পেয়েছেন সীমা সরকার। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে মা-ছেলের অবিশ্বাস্য লড়াইয়ের গল্প। সেই সাথে হতাশ হয়ে পড়া অনেক মানুষ পেয়েছে নতুন করে বাঁচার প্রেরণা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ