প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে বামদের বিকল্প নেই : ডা. মনীষা চক্রবর্তী

বিভুরঞ্জন সরকার : দুর্নীতি ও কর্তৃত্ববাদমুক্ত প্রশাসন গড়তে হলে বামগণতান্ত্রিক দল ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই। আমাদের নতুন সময়ের সাথে আলাপকালে বাসদ নেত্রী ডা. মনীষা চক্রবর্তী এই মন্তব্য করেছেন। গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বরিশালে মেয়র পদে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ব্যাপকভাবে আলোচনায় এসেছিলেন।

ডা. মনীষা বলেন, আওয়ামী লীগ অথবা বিএনপি যে দলই ক্ষমতায় আসুক না কেন, অর্থনৈতিক দিকটি একই থাকবে। হয়তো বা বাহ্যিক কিছুটা পরিবর্তন হবে। তাছাড়া আর কোনো দিকে পজেটিভ কিছু পরিবর্তন হবে বলে মনে হয় না। তাই বাম গণতান্ত্রিক শক্তি যতোদিন না দাঁড়াচ্ছে, ততোদিন দেশের রাজনীতিতে মৌলিক গুণগত পরিবর্তন হওয়া সম্ভব নয়।

বামদলগুলোর দুর্বল অবস্থান সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি মানুষের কাছে গিয়ে আমাদের বক্তব্য তুলে ধরতে, মানুষকে আমাদের পক্ষে আনতে। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিয়ে আমি সাধারণ মানুষের যে সমর্থন-সহযোগিতা ও ভালোবাসা পেয়েছি তা এক কথায় অতুলনীয়। মানুষের সঙ্গে থাকলে, মানুষের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হলে মানুষও আমাদের সঙ্গে থাকবে এটি আমার বিশ্বাস।

আমাদের দেশের নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে বামদের সাফল্য অর্জন সহজ নয় উল্লেখ করে ডা. মনীষা বলেন, নির্বাচন যতোদিন কালোটাকা ও পেশিশক্তির প্রভাব মুক্ত না হবে, ততোদিন বাম বা ভালো প্রার্থীদের নির্বাচনে সাফল্য লাভ কঠিন হবে। তারপরও আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে, মানুষের কাছে আমাদের বক্তব্য পৌঁছে দিতে হবে। ভালো-খারাপের তফাত মানুষ অবশ্যই বুঝতে পারে।

বামদলগুলো ঐক্যবদ্ধভাবে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে। সারাদেশে দেড়শতাধিক আসনে বামগণতান্ত্রিক ঐক্যজোটের প্রার্থী থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বামজোটের যারা প্রার্থী হচ্ছেন তাদের অনেকেরই নিজ নিজ এলাকায় অবস্থান শক্ত ও অন্যদলের প্রার্থীর সাথে সমানে সমান লাড়াই করার মতো ক্ষমতা রাখেন। তবে নির্বাচনে পেশি শক্তি, মাসেল পাওয়ার এবং মিডিয়া কোনোটাই বামদের পক্ষে কাজ করে না। সবগুলোই প্রতিবন্ধক হিসেবে কাজ করে। তাই এই সমস্ত কিছুর বিপক্ষে দাঁড়িয়ে আদর্শের পক্ষে একটি জাগরণ তৈরি করা দরকার। তার জন্য দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত শক্তি হিসেবে মানুষের আস্থাভাজন হতে হবে।

অর্থনীতিবাদী আন্দোলন করলে মানুষ নিজের স্বার্থে দলে আসে। আবার তার সাথে সাথে যেটা চ্যালেঞ্জিং তা হচ্ছে, রাজনৈতিকভাবে মানুষকে শিক্ষিত করা। আন্দোলনের মধ্য দিয়ে মানুষকে যতোটুকু শিক্ষিত করা যায়, ততোটুকুই সম্ভাবনা তৈরি হয়। তবে বামদলগুলোর একটি সমস্যা হচ্ছে, তারা কোনোনা কোনো সাইড ধরে থাকে। নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর যে চেষ্টা তা অনেক সময় করেছে, আবার সরেও গিয়েছে। বামপন্থিরা যে একটি শক্তি হয়ে দাঁড়াতে পারেনি, তার জন্য বামদেরই কাউকে কাউকে দায়ী করে ডা. মনীষা বলেন, অতীত নিয়ে বিলাপ করে লাভ নেই। আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে দৃঢ় পদক্ষেপে। লাগাতার কাজের মধ্য দিয়ে মানুষের ভেতর একটি আস্থার জায়গা তৈরি করতে হবে। আমরা সেই চেষ্টায় নিয়োজিত আছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ