প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এ যেন আরেক টাইটানিক

ডেস্ক রিপোর্ট : ১৯২৮ সালে তলিয়ে গিয়েছিল সেই জাহাজ। গত নয় দশকে তাকে নিয়ে রচিত হয়েছে কাহিনীর পর কাহিনী। তল্লাশি চলেছে জোর কদমে। কিন্তু তার কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। জানা গেছে, টাইটানিকের মতো ‘মানাসু’ নামের এই জাহাজটিও ছিল ব্রিটিশ। কানাডার লেক হিউরনে এক ঝড়ের কবলে পড়ে তলিয়ে যায় ‘মানাসু’। প্রাণ হারান ১৬ জন যাত্রী।

ইতিহাস বিশেষজ্ঞ ক্রিস কোহল জানিয়েছেন, ১৯২৮ সালের আগে ‘মানাসু’ চলাচল করত লেক অন্টারিওতে। সেই বছর তার মালিকানা বদল ঘটে। নতুন মালিক সেটিকে লেক হিউরনে নিয়ে যান। সেই সঙ্গে বদলে দেয়া হয় জাহাজটির নামও।

আগে তার নাম ছিল ‘মাকাসা’, পরে নামকরণ হয় ‘মানাসু’। ৯০ বছর ধরে খোঁজ চলেছে ‘মানাসু’র। কিন্তু ১৮৮৮ সালে গ্লাসগোয় তৈরি এই জাহাজের সন্ধান মেলেনি। সম্প্রতি এই জাহাজকে অন্টারিওর গ্রিফিথ আইল্যান্ডের কাছে ২০০ ফুট জলের গভীরে আবিষ্কার করলেন কোহ?ল এবং তার সহযোগী কেন মেরিম্যান এবং জেরি এলিয়াসন।

জানা গেছে, ডুবে থাকা মানাসুতে কোনো মানুষ বা প্রাণীর দেহাবশেষ পাওয়া যায়নি। কিন্তু জাহাজের ডেকে রাখা ১৯২৭ সালের একটি গাড়ি পাওয়া গেছে যথাস্থানেই। জাহাজ ভর্তি ছিল গবাদিপশুতে। এই পশুগুলোর মালিক ডোনাল্ড ওয়ালেসই ছিলেন এই গাড়ির মালিক। তিনি অবশ্য বেঁচে যান এই দুর্ঘটনায়।
সূত্র : যুগান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ