প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাবেক পেসার শ্রীশান্ত আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন?

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০১৩ সালে আইপিএলে স্পট-ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ায় আত্মহত্যার কথাও ভেবেছিলেন ভারতের জাতীয় দলের সাবেক পেসার শ্রীশান্ত। সেই যন্ত্রণার দিনগুলোর কথাই জনপ্রিয় এক টিভি শো’তে জানালেন তিনি।

আইপিএলের ষষ্ঠ সংস্করণে রাজস্থান রয়্যালস ও চেন্নাই সুপার কিংসের ম্যাচে এই অভিযোগ উঠেছিল। একা শ্রীশান্তই নন, স্পট-ফিক্সিংয়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন অজিত চান্ডিলা ও অঙ্কিত চবন। ২০১৫ সালে অবশ্য দিল্লি কোর্ট এই অভিযোগ থেকে তাকে বেকসুর খালাস করে দেয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড তাকে চিরনির্বাসিত রেখেছে।

টিভি শো ‘বিগ বসে’ শ্রীশান্ত বলেছেন, মাত্র দশ লাখ টাকার জন্য তাঁকে স্পট-ফিক্সিংয়ে অভিযুক্ত করা হয়েছিল। ক্রিকেট ক্যারিয়ারে দাড়ি পড়তে চলেছে দেখে হতাশায় সেই সময় আত্মহত্যা করার কথা মাথায় উঁকি দিয়েছিল তার।

৩৫ বছর বয়সী শ্রীশান্ত নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন। এই শোয়ে কোনদিন দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়ার দাবিও করেছেন তিনি। কান্নায় ভেঙে পড়ে শ্রীশান্ত বলেছেন, তার ছেলে যদি ক্রিকেট খেলে, তাহলেও তিনি তা দেখতে পাবেন না। কারণ, ক্রিকেট মাঠে তার প্রবেশের অনুমতি নেই।

ইনস্টাগ্রামে শ্রীশান্তের এই কথাবার্তার ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। আর সেখানেও জন্ম নিয়েছে বিতর্ক। রাজস্থান রয়্যালসের সেই সময়ের অন্যতম মালিক রাজ কুন্দ্রা এই পোস্টের নিচে ‘এপিক’ লিখে হাসির ইমোজি দেন। তার আবার সমালোচনা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কারণ, সেই সময় বেটিংয়ের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন রাজ কুন্দ্রাও।- জি, নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ