প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে, সমৃদ্ধ অর্থনীতির ঘোষণা দলগুলোর

হ্যাপি আক্তার : দেশে প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের আগামী নির্বাচনের ইশতেহারে প্রধান লক্ষ্য, নির্বাচনে জিতলে সুশাসন নিশ্চিত করার পাশাপাশি দেশকে দারিদ্রমুক্ত করা। কিন্তু নির্বাচনের ইশতেহার বিশ্লেষণ করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অনেকটা রাজনৈতিক কৌশল হিসেবেই সমৃদ্ধ অর্থনীতির ঘোষণা দেয় দলগুলো। কিন্তু সেই অঙ্গীকার বাস্তবায়নে ইশতেহারে থাকে না সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা।  -ডিবিসি নিউজ।

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দুই দলই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো ২০০৮ এর নির্বাচনী ইশতেহারে। আগামী নির্বাচনের ইশতেহারেও বড় অংশ জুড়ে থাকছে উন্নয়নের কথাই।

আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রধান দিক থাকবে অর্জিত প্রবৃদ্ধিকে আরো বাড়ানো। দারিদ্রকে কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হবে বলেও জানান তিনি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বলেন, ‘উন্নয়নের ফল বাংলাদেশের নাগরিক দের ভোগ করতে হবে। কল্যাণকর রাষ্ট্র হিসেবে জনগণের কাছে সকল সুবিধা পৌঁছে দেয়াই হবে লক্ষ্য।’

তবে যে দলই ক্ষমতায় আসুক তাদের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে বিনিয়োগ, কর্মসংস্থানের দিকে আলাদা নজর দেয়ার পরামর্শ অর্থনীতিবিদ ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মির্জা আজিজুল ইসলামের। তিনি বলেন, ‘বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ গত প্রায় এক দশক ধরে জাতীয় উৎপাদনের আনুাতিক হাতে মোটামুটি স্থির হয়ে আছে। এ ক্ষেত্রে যেসব প্রতিবন্ধকতা আছে সেগুলো দূর করার জন্য কী ধরনের পরিকল্পনা নেয়া হবে তার একটা ইঙ্গিত থাকা উচিৎ।’

সর্বাধিক পঠিত