Skip to main content

মনোনয়নে স্বাধীনতাবিরোধীদের প্রাধান্য দিয়েছে বিএনপি : সুভাষ সিংহ রায়

লিয়ন মীর : বিএনপির মনোনয়নে স্বাধীনতা বিরোধী এবং ষড়যন্ত্রকারীদের প্রধ্যান্য দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাষ সিংহ রায়। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী যুদ্ধাপরাধী জাামায়াতে ইসলামীকে বিএনপি জোট ২৯টি আসন ছেড়ে দিয়ে স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তিকে আবারো পুনর্বাসন করার প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়েছে। সেইসাথে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের এবং বিভিন্ন দলছুট নীতিহীন নেতাদের মনোনয়নে প্রধ্যান্য দেওয়া হয়েছে। এককথায়, বিএনপি তাদের মনোনয়নে রাজাকার, ষড়যন্ত্রকারী এবং খুনিদের অগ্রাধিকার দিয়েছে।তিনি আরো বলেন, বিএনপি যেমন, তাদের জোট যেমন, মনোনয়ন হয়েছেও তেমন। বিএনপি জন্ম নিয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্যদিয়ে। বঙ্গবন্ধুর রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে বাঁশিতে ফুঁ দিয়ে রাতারাতি রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে রাজাকার আর খুনিদের সঙ্গে নিয়ে দেশ পরিচালনা করেছে। এদের মনোনয়ন আর কেমন হতে পারে? আওয়ামী লীগ একদিকে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছে, অপরদিকে বিএনপি তাদের পুনর্বাসন করার ঘোষণা দিয়েছে। জাতির জন্য এটা ভীষণ লজ্জার। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে হাঁটার কথা বলে, যুদ্ধাপরাধীদের ক্ষমতায় আনার যুদ্ধে নেমেছেন। ড.কামাল, আ স ম আবদুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্না এবং জামায়াতের প্রার্থীর মধ্যে এখন আর কোনো তফাত নেই। তাদের সবার মার্কা ধানের শীষ। তারা সবাই একে অপরের সাথে মিশে একাকার হয়ে গিয়েছেন। ড. কামাল সাহেব মুখে মুক্তিযুদ্ধের কথা বলছেন আবার রাজাকারদের সঙ্গে নিয়ে সরকার গঠন করতে জোটবদ্ধ হয়ে ভোটে নেমেছেন। তিনি সাধারণ মানুষকে বোকা মনে করেছেন, আসলে দেশের মানুষ বোকা নয়, অনেক বেশি সচেতন। সচেতন দেশবাশি রাজাকার, খুনি, ষড়যন্ত্রকারী, দলছুট পরাজিত ব্যক্তিদের ভোট দেবে না। ভোটের মাঠে তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করতে জনগণ অপেক্ষা করছে। এটা বুঝতে পেরেই, আবারও ষড়যন্ত্র করে উল্টোপথে ক্ষমতায় যাওয়ার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। কিন্তু শেষ হিসেবে, জনগণের কাছে তাদের পরাজয় অনিবার্য।

অন্যান্য সংবাদ