প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অন্তত ৫০ আসনে নারীপ্রার্থী আশা করেছিলাম : রাশেদা রওনক খান

তানজিনা তানিন : সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নারীপ্রার্থী না এলে নারীর ক্ষমতায়ন বাস্তবায়িত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক রাশেদা রওনক খান। তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার নারী উন্নয়নের রোল মডেল। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারীপ্রার্থীদের অন্তত ৫০ আসনে মনোনয়ন আশা করেছিলাম।
মনোনয়নের চূড়ান্ত ঘোষণা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ আরও নারী প্রার্থী মনোনয়ন দিবে বলে তিনি মনে করেন।
এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, সংরক্ষিত ৫০ আসনে নারীদের কোনো নেতৃত্বের সুযোগ থাকে না। সংরক্ষিত আসনের নারীকর্মীদের কোণঠাসা করে রাখা হয়। তাই নির্বাচিত আসনে নারীপ্রার্থীদের আসা খুব জরুরি। নারীর ক্ষমতায়ন ও তা বাস্তবায়নে রাজনীতিতে অংশগ্রহণ আবশ্যক। জাতীয় পর্যায়ে নারীর ভূমিকা সামাজিকভাবে নারীর অস্তিত্ত্বের জানান দিবে। ৩০০ আসনে নারীদের ৫০ আসন নিশ্চিত হলে রাজনীতিতে নারীর অবয়ব পরিলক্ষিত হবে।
যদিও গত নির্বাচনের তুলনায় এ বছর মনোনিত প্রার্থী বেড়েছে, এর সংখ্যা আরও বাড়ানো উচিত। এক প্রশ্নের জবাবে রাশেদা রওনক খান বলেন, ইতোমধ্যে মেয়র, চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের নানা নির্বাচনে নারীদের জয়লাভ আমরা দেখেছি। জনসেবায় তাদের ভূমিকাও অনন্য। জনগণ নারী নেতৃত্ব নিয়ে কোনো সংশয়ে নেই। খুব স্বাভাবিকভাবেই তারা নারীদের রাজনীতিতে গ্রহণ করেছে। নির্বাচিত আসনে নারী প্রার্থী বৃদ্ধি করে তৃণমূল পর্যায়ে জনসেবায় অবদান রাখার সুযোগ করে দেওয়া উচিত।
আওয়ামী লীগ নারী অগ্রগতির কর্ণধার হিসেবে বিশ্বে আলোচিত হয়েছে। রাজনীতিতে নারীর সুযোগ বৃদ্ধি করে এই ধারা অব্যাহত রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ