প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিরলে ভাতাপ্রাপ্ত এক মুক্তিযোদ্ধার বিরদ্ধে তদন্ত করলেন ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি

এম, এ কুদ্দুস, বিরল (দিনাজপুর) : দিনাজপুরের বিরলে যুদ্ধাহত ভাতাপ্রাপ্ত এক মুক্তিযোদ্ধার বিরদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করলেন, ৭ সদস্য বিশিষ্ট উচ্চ পর্যায়ের একটি তদন্ত কমিটি। তদন্ত কমিটি মঙ্গলবার সকালে সরে জমিনে এসে তদন্ত করেছেন। তদন্ত শেষে তদন্ত টিমের অনুমতিক্রমে বিরল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবুল কাশেম অরু সাংবাদিকদের বলেন, বিরল সদর ইউপি’র ঝাড়পুকুর গ্রামের মৃতঃ আব্দুল গফুরের পুত্র ভাতাপ্রাপ্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে সে মুক্তিযোদ্ধা ছিলনা মর্মে কেন্দ্রীয় পর্যায় অভিযোগ হয়েছে।

তদন্ত কালে জানা গেছে, লুৎফর রহমান আসলেই মুক্তিযোদ্ধা ছিলনা। সে স্বাধীনতার বিপক্ষে সক্রীয় রাজাকার ছিল। ৭১-এর ১৮ ডিসেম্বর বগুড়ায় বোমা ব্লাস্টে তার দুই হাত উড়ে যায়। পরবর্ত্তীতে সে কৌশলে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় নাম লেখায়। শুধু তাই নয় প্রথম থেকেই সে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে ভাতাও উত্তোলন করতে শুরু করে। তার মুক্তি বার্তা নং-০৩০৮০২০০১৯। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত করতে উচ্চ পর্যায়ের এ তদন্ত কমিটি এসেছেন। তদন্তে তার অভিযোগের সততা পাওয়া গেছে।

এখন কর্তূৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। তদন্ত কমিটিতে ছিলেন, খেতাবপ্রাপ্ত শহীদ যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের মহাসচিব আনোয়ার হোসেন পাহাড়ী বীর প্রতিক, (জাতীয় পদক প্রাপ্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা), বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ঢাকা মহানগর ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আমির হোসেন মোল্লাহ, সহকারী কমান্ডার ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবু শহীদ বিল্লাহ্ বকুল এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাষ্টের কল্যাণ কর্মকর্তা (ঢাকা,রাজশাহী বিভাগ) ও প্রতিষ্ঠান প্রধান আবুল কাশেম চৌধুরীসহ অন্যান্য কমিটির সদস্য বৃন্দ।

এছাড়াও তদন্তের সময় বিরল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার রহমান আলীসহ স্থানীয় অনেক মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ