প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৫ ওভারে ১০ নো বল, চোখে পড়েনি আম্পায়ারের

স্পোর্টস ডেস্ক : তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কা কোনোরকম প্রতিদ্বন্দ্বিতাই করতে পারেনি। তিন ম্যাচের সবগুলিতেই তারা হেরে গিয়ে হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। ইংলিশদের এ অবিস্মরণীয় সিরিজ জয়ের পাশাপাশি মাঠের আরেকটি ঘটনা নজর কেড়েছে সবার।

রিভিউ সিস্টেম চালু হওয়ার পর থেকে ক্রিকেট মাঠে আম্পায়াদের কাজ অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে। তবে কমেছে ভুল সিদ্ধান্তের সংখ্যা। কিন্তু যখন পাঁচ ওভারের স্পেলে ১০টা নো বলই ধরতে ব্যর্থ হন আম্পায়াররা, তখন আম্পায়ারিংয়ের মান নিয়েই প্রশ্ন উঠে যায়।

এমন ঘটনাই ঘটেছে শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ডের তৃতীয় টেস্টে সফরকারীদের প্রথম ইনিংসে। লঙ্কান স্পিনার লাকশান সান্দাকান ম্যাচে এক ইনিংসে পাঁচ উইকেটসহ মোট ৭টি উইকেট নিয়েছেন। তার করা মোট ১৩টি নো বলের মধ্যে মাত্র ২টি নো বল ধরতে পেরেছেন দুই আম্পায়ার নিউজিল্যান্ডের ক্রিস গ্যাফানি ও ভারতের সুন্দরাম রবি।

ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে দুইবার আউট করেও উইকেটটি পাননি সান্দাকান। কারণ টিভি রিপ্লেতে চেক করে দেখা গিয়েছে দুইবারই ওভার স্টেপিং করেছেন তিনি। দুইবারই মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার পথে উইকেটে ডেকে আনা হয় স্টোকসকে। ২২ ও ৩২ রানে নো বলের কারণে বেঁচে যাওয়া স্টোকস শেষ পর্যন্ত আউট হন ৪২ রান করে।

এই ম্যাচের সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা ‘স্কাই’ জানিয়েছে নতুন তথ্য। তারা তাদের রেকর্ডেড ভিডিও দেখে বলেছে সে ইনিংসে পাঁচ ওভারের এক স্পেলে অন্তত ১২ বার ওভারস্টেপ করেছেন সান্দাকান, কিন্তু ১০ বারই ধরতে পারেননি আম্পায়াররা। দুইটি বলে স্টোকস আউট না হলে সেই দুইটিও নো বল হিসেবে ধরা হতো না বলে জানিয়েছে স্কাই।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তীব্র সমালোচনা ও বিতর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও নো বল গুলো না ধরায় ইংল্যান্ডের জয়ে কোনো সমস্যা হয়নি। তারা ৪২ রানে জিতে ঠিকই হোয়াইটওয়াশ করার আনন্দে ভেসেছে। কিন্তু আম্পায়াদের এমন উদাসীনতা ক্রিকেটের ভবিষ্যতের জন্য খুবই নেতিবাচক বলে মতামত সকলের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত