প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গোয়েবলস বলতেন জগতে সত্য মিথ্যা বলে চুড়ান্ত কিছু নেই

দেবদুলাল মুন্না : মিথ্যাকে সত্য রুপে হাজির করার কারিগরের নাম জোসেফ গোয়েবলস। তার বিখ্যাত উক্তি ছিল , জগতে সত্য মিথ্যা বলতে চুড়ান্ত কিছু নেই।ধারণা মাত্র। একটি মিথ্যাকে দশ বারবার বললে কিভাবে সত্যে পরিণত সেটি তিনি করে দেখিয়েছিলেন । জার্মানির হিটলারের প্রচারমন্ত্রী।

প্রতিপক্ষের কাছে এমন মিথ্যা তথ্য পৌছানোর ব্যবস্থা করতেন যা শুনে তারা বিভ্রান্ত হতেন। মিথ্যা প্রচার করেছিলেন , উইনস্টন চার্চিল ডিমেনশিয়ায় ভুগতে শুরু করেছেন। ফলে বিশ্বযুদ্ধের সময় তার নিজের বাহিনীর সদস্যদের ওপরই গুলি করে বসতে পারেন।এ তথ্য জেনে ৩০০০ হাজার বৃটিশ সেনা চাকরি ছেড়ে দিয়েছিল।

কিন্তু তার শুরু ও শেষ ভাল ছিল না। জন্ম ১৮৯৭ সালের ২৯শে অক্টোবর। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে। প্রাইভেট টিউশনি করে পড়াশোনার খরচ চালাতে হয়েছে। বড় কথা, তার বাবা ফ্রিৎজ গোয়েবলস এবং মা মারিয়া ক্যাথরিনা দুজনই ছিলেন ধার্মিক ক্যাথলিক। ধর্মীয় কাজে বেশি সময় দিতেন। ফলে তিনি ছিলেন স্নেহবঞ্চিত। সাত বছর বয়সে একটি অপারেশন সফল না হওয়ায় তার বা পায়ে সমস্যা দেখা দেয়। তাই তিনি সারা জীবন খুড়িয়ে হাঁটতেন। শ্বাস কষ্টে ভুগতেন। ইনহেলার নিতেন। দৃষ্টিশক্তি কম ছিল।

কিন্তু ১৯২২ সালে যোগ দেন হিটলারের ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট জার্মান ওয়ার্কার্স পার্টিতে (নাৎসি পার্টি)। জার্মানি তখন প্রথম বিশ্বযুদ্ধের খেসারত দিচ্ছে। পরাশক্তি জার্মানিকে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে আখ্যায়িত করে। কিন্তু ১৯৩৩ সালে হিটলার জার্মানির চ্যান্সেলর হন। এরপর শুরু হয় দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের প্রস্তুতি। শেষ পর্যন্ত জার্মানীকে হারতে হয়।

৩০ এপ্রিল বার্লিনে বাঙ্কারে অবস্থানরত হিটলার আত্মহত্যা করেন।

১৯৪৫ সালের ১ মে। হিটলারকে দাহ করার পর একদিনও অপেক্ষা করলেন না গোয়েবলস। প্রথমে নিজের ছয় ছেলেমেয়েকে বিষ প্রয়োগে হত্যা করেন। তারপর স্ত্রীকে গুলি করে মারেন। শেষে আত্মহত্যা করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত