প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুলাউড়ায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীকে বরণ করে নিলেন হাজারো নেতাকর্মী

স্বপন কুমার দেব, মৌলভীবাজার : জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট শীর্ষ নেতা ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ তার নিজ নির্বাচনী এলাকা মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) সোমবার পারাবত ট্রেন যোগে এসে পৌঁছালে কুলাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে তাঁকে বরণ করে নেন সুলতান মনসুরের অনুসারী ও বিএনপির হাজারো নেতাকর্মী।

স্টেশনে পৌঁছা মাত্র হাজার হাজার সুলতান সমর্থক ও বিএনপি নেতাকর্মীরা তাঁকে ঘিরে ফেলে। সেখান থেকে বের হয়ে স্টেশন চৌমুহনী এলাকা হয়ে উত্তরবাজার সড়ক অতিক্রম করে নিজ বাসায় যান। সেখানে নেতাকর্মীর উদ্দেশ্যে তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বলেন, আজকে গণতন্ত্র,মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত। মানুষ স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারছে না। মানুষের আজ বাক স্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ২২ সেপ্টেম্বরে আমাদের জাতীয় ঐক্যের ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপি, গণফোরাম, কুষক শ্রমিক জনতা লীগ, জেএসডিসহ ২০ দলীয় জোট একত্র হয়েছে মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়ার আন্দোলনে। ৪ দফা ১১ দাবী নিয়ে আমাদের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যাত্রা। সেখানে সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি অন্যতম প্রধান দাবী।

উনাকে মাত্র ২ কোটি টাকার জন্য আটকে রাখা হয়েছে। যেখানে কারাগার নাই, একটি পরিত্যাক্ত ঘরে তাকে কারবন্দি করে রাখা হয়েছে। অথচ সেই টাকার কয়েক গুন বেশী টাকা এখনও ব্যাংকে জমা আছে। দেশের এই সঙ্কটাপন্ন পরিস্থিতিতে এগিয়ে এসে গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য লড়াই করছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা, সংবিধান প্রণেতা, বিশিষ্ট আইনজীবি ড. কামাল হোসেন।

উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, যদি আপনারা বাংলাদেশের গণতন্ত্র চান, আমার ভোট আমি দেব, যাকে খুশি তাকে দিব এই পরিবেশ যারা চান, গুম হত্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য, মুক্তি পাওয়ার জন্য আজ আপানদের এক হতে হবে। কুলাউড়ার ১৩ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সকল মা-বোনদের কাছে আমাদের এই তথ্য পৌঁছে দিতে আপনারা কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, ধানের শীষ বাংলাদেশের মানুষের অতি পরিচিত একটি মার্কা তাই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ এই মার্কায় নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একজন সদস্য হিসেবে এবং বঙ্গবন্ধুর অনুসারী হিসাবে আমি আপনাদের আহ্বান জানাবো, আগামী দিনের বাংলাদেশ হবে সকল দল, মত, পথের সকলকে নিয়ে জাতীয় ঐক্যমতের সরকার গঠন করি।

এর আগে তাঁর আগমন উপলক্ষ্যে সকাল ১১টা থেকে ঐক্যফ্রন্টের শরীক বিএনপি এবং সুলতান মনসুরের সমর্থকরা কুলাউড়া রেলওয়ে স্টেশন ও তার আশেপাশে অবস্থান করে। আর অন্যদিকে যাতে তারা সভা-সমাবেশ, মিছিল করতে না পারে এবং কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সেজন্য পুলিশ তৎপর ভূমিকা পালন করে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুসারে এখন কোন প্রার্থী সভা, সমাবেশ, মিছিল করতে পারবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত