প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চামেলীর পায়ে অস্ত্রোপচার সফল

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার চামেলী খাতুনের পায়ের লিগামেন্টের অস্ত্রোপচার হয়েছে। সোমবার সকাল ১০টায় ভারতের ব্যাঙ্গালোরের শীর্ষ পর্যায়ের বেসরকারি ক্লিনিক স্পর্শ অর্থপেডিক হাসপাতালে সফলভাবেই অস্ত্রোপচার হয়।

ডা. প্রশান্ত তেজওয়ানি এ অস্ত্রোপচার করেন। বর্তমানে তাকে পর্যবেক্ষণে কক্ষে রাখা হয়েছে। আগামী দুই দিন তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখে কেবিনে পাঠানো হবে। দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন চামেলীর ভাগ্নি মুশফিকা রোজি।

তিনি ডাক্তারের বরাত দিয়ে জানান, প্রায় আড়াই ঘণ্টার অপারেশন ভালো হয়েছে। তাদের প্রত্যাশা দ্রুত সেরে উঠবেন চামেলী। দুপুর ১টার দিকে জ্ঞান ফেরে এই ক্রিকেটারের। দেশবাসীর দোয়া কামনা করেছেন।

রোববার সন্ধ্যায় স্পর্শ অর্থপেডিক হাসপাতালে ভর্তি হন সাবেক এই অলরাউন্ডার। হাসপাতালটির ২১০নং কেবিনে রেখেই তাঁর চিকিৎসা হচ্ছে। শনিবার সকালে স্পর্শ অর্থপেডিক হাসপাতালে ডা. প্রশান্ত তেজওয়ানি ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে করা সব পরীক্ষা-নিরীক্ষার রিপোর্টগুলো পর্যবেক্ষণ করেন এবং রোববার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। রোববার সন্ধ্যায় তিনি ভর্তি হওয়ার পর সোমবার সকালে অস্ত্রোপচার হয়েছে।

এর আগে রোববার সন্ধ্যায় ডাক্তারেরর বরাত দিয়ে চামেলী পরিবর্তন ডটকমকে জানান, অস্ত্রোপচার করলেই আগামী এক বছরের মধ্যে তিনি স্বাভাবিক অবস্থানে ফিরতে পারবেন।

বাংলাদেশ থেকে গত শুক্রবার দুপুরে ঢাকার হজরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে একটি ফ্লাইটে কলকাতা বিনামবন্দর পৌঁছান। সেখান থেকে ব্যাঙ্গালোরে গিয়ে সুচি গেস্ট হাউজে অবস্থান করছিলেন।

চামেলীর পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ায় দীর্ঘদিন থেকে অবস্থান করছিলেন রাজশাহী মহানগরীর দরগাপাড়ার জরাজীর্ণ একটি ঘরে। বিষয়টি পরিবর্তন ডটকমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে অনেকেই তার পাশে এসে দাঁড়ান।

এ সময় তাঁর চিকিসার সব দায়িত্ব নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ২ নভেম্বর রাজশাহী থেকে ঢাকা নিয়ে ভর্তি করা হয় জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (পঙ্গু হাসপাতালে) ২১৬নং কেবিনে। সেখানে প্রাথমিক পর্যায়ের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে হাসপাতালেই চিকিৎসার প্রস্তুতি শরু হয়। কিন্তু চামেলী দাবি করেন ভারতে চিকিৎসার জন্য। তার দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয় ভারতে।

বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের হয়ে ১৯৯৯ থেকে ২০১১ পর্যন্ত মাঠ মাতিয়ে বেড়িয়েছেন চামেলী খাতুন। ২০১০ সালের এশিয়া কাপের রানার আপ হওয়া দলের হয়ে মাঠ মাতান এই দাপুটে ক্রিকেটার। এর বাইরে ঢাকা বিভাগে খেলেছেন টানা। দুই মৌসুম শেখ জামালের ক্যাপ্টেন হিসেবে সামনে থেকে টেনে নিয়ে গেছেন দলকে। এখন তিনিই পরাস্ত ইনজুরিতে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ