Skip to main content

বরিশালের সেই প্রেমিক অপু পুলিশের নজরদারিতে

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে ফেইসবুকে অপপ্রচার ও অশালীন মন্তব্য করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ব্লগার মাইকেল অপু মন্ডলের বিরুদ্ধে। ঘটনার সত্যতাও স্বীকার করে দেশে বাক স্বাধীনতা নেই বলে দাবী করেছে ব্লগার অপু। তার এই কর্মকান্ড আইনত দন্ডনীয় বলে মনে করেন আইন বিশেষজ্ঞরা। এদিকে তাকে কড়া নজরদারীতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার। ফেইসবুকে পরিচয়ের সুত্র ধরে আমেরিকান এক তরুণীর সাথে আংটি বদল করে গত ২২ নভেম্বর থেকে দেশে ব্যাপক পরিচিতি পান বরিশালের ব্লগার মাইকেল অপু মন্ডল। শনিবার (২৪ নভেম্বর) রাতে নগরীর বান্দ রোডস্থ হোটেল চারু থেকে তাকে কোতয়ালী থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। সেখানে অপুকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তারপর রাতেই তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। পুলিশ জানায়,অপুর বিরুদ্ধে দেশ ও দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে আপত্তিকর অপপ্রচার ও অশালীন মন্তব্য করার অভিযোগ পাওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার করে দেশে বাক স্বাধীনতা নেই বলে দাবী করেছে ব্লগার অপু । তবে তার এই কর্মকান্ড সঠিত নয় বলে মনে করছে অপুর পরিবার। এদিকে তার এই কর্মকান্ড আইনত দন্ডনীয় বলে মনে করেন আইন বিশেষজ্ঞরা। অপরদিকে তাকে কড়া নজরদারীতে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ২০১৭ সালের ১৯ নভেম্বর ফেইসবুকে পরিচয় হয় বরিশালের ছেলে মাইকেল অপু মন্ডলের সাথে আমেরিকার তরুণী সারা মেকিয়েনের। এরপর চলে প্রেম। ঠিক এক বছর পর ১৯ নভেম্বর ঢাকা আসেন সারা। গত ২২ নভেম্বর বরিশাল নগরীর কাউনিয়াস্থ মাইকেলের বাড়ীতে অনুষ্ঠিত হয় তাদের এ্যাংগেজমেন্ট। বিষয়টি মিডিয়ায় প্রকাশের পর ব্যপক পরিচিতি পায় এই অপু। সে একজন ফ্রিল্যান্সারও। আর সারা মিনিসোটার একটি বৃদ্ধাশ্রমে নার্স হিসেবে কর্মরত। সূত্র: সময় টিভি