প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে নোট বাতিলে ফেরত কালো টাকার পরিমান জানাতে মোদির অস্বীকৃতি

রাশিদ রিয়াজ : ভারতে নোট বাতিলের ফলে কি পরিমান কালো টাকা উদ্ধার সম্ভব হয়েছে তা জানানো হবে বলে যে অঙ্গীকার করেছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তা তিনি রাখছেন না। আদৌ কী পরিমান কালো টাকা ফিরেছে বা ফিরলেও বা কত তা জানাতে নারাজ এখন প্রধানমন্ত্রীর দফতর। অথচ নোট বাতিলের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সোচ্চারে বলেছিলেন, এই ‘ঐতিহাসিক’ পদক্ষেপে কালো টাকা ফিরে আসবে ভারতে। প্রধানমন্ত্রীর দফতার বলছে, কালো টাকার ব্যাপারে তদন্ত করতে একটি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে।

ভারতে সম্প্রতি তথ্য জানার অধিকার আইনে একটি আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী মোদির দফতর স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে আপাতত ওই তথ্য দেওয়া যাবে না। জানানো হয়েছে, কালো টাকার ব্যাপারে তদন্ত চলছে। এই পরিস্থিতিতে কোনও তথ্য প্রকাশ করলে সেই তদন্ত বাধাপ্রাপ্ত হবে।

গত ১৬ অক্টোবর ভারতের কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশন সরকারকে নির্দেশে দিয়েছিল কালো টাকা সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য ১৫ দিনের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু সেই নির্দেশের কোন ফলই হয়নি। তথ্য জানার অধিকার আইনে সঞ্জীব চর্তুবেদী নামে এক প্রাক্তন আমলা কালো টাকার বিষয়ে তথ্য জানতে আবেদন করেছিলেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতেই সিটের তদন্তের কথা জানানো হয়েছে। এমনও জানানো হয়েছে, কালো টাকা নিয়ে তদন্ত করছে ভারতের একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা। সেইসব সংস্থার কার্যকলাপ আরটিআই আইনের বাইরে। মোদির দফতার থেকে ওই কথা জানানোর পরই কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশনে যান চর্তুবেদী। কমিশনের সেই নির্দেশেরই জবাবে ‘না’ করে দিল মোদির দফতর। এই সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ