প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফুটবল লিকসের টার্গেট রামোস

স্পোর্টস ডেস্ক : ফুটবলের হাঁড়ির খবর ফাঁস করতে সিদ্ধহস্ত ফুটবল লিকস সর্বশেষ যে বোমা ফাটিয়েছে তাতে কপাল পুড়তে পারত সের্গিও রামোসের। রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়কের বিরুদ্ধে ডোপ-বিরোধী নীতিমালা ভঙ্গের মারাত্মক অভিযোগ তুলেছিল এই ওয়েবসাইট। কিন্তু ফুটবল লিকসের প্রতিবেদনকে ভিত্তিহীন গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ ও উয়েফা।

বিশ্ব ডোপ-বিরোধী সংস্থার (ওয়াডা) মতামত নিয়েই রামোসের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরুর সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছে উয়েফা। রিয়াল মাদ্রিদও কাল জোর গলায় জানিয়েছে, রামোস কখনই ডোপিং নীতি লংঘন করেননি। কিন্তু ঘটনা যাই হোক, ফুটবল লিকস তাকে ডোপপাপী হিসেবে চিত্রিত করায় রামোসের ভাবমূর্তির বারোটা বেজে গেছে।

ওয়েবসাইটটির দাবি, ২০১৭ সালে কার্ডিফে জুভেন্টাসের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের পর ডোপ-পরীক্ষায় ধরা পড়েছিলেন রামোস। ফাইনালের আগেরদিন তিনি যে ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়েছিলেন তাতে নিষিদ্ধ ড্রাগ ডেক্সামেথাসোনের উপস্থিতি ছিল। পরে রামোস ডোপ পরীক্ষায় পজিটিভ প্রমাণিত হলেও তাকে কোনো শাস্তি না দিয়ে বিষয়টি চেপে যায় উয়েফা। সেটি অবশ্য যৌক্তিক কারণেই।

নিয়ম অনুযায়ী, কোনো খেলোয়াড় ব্যথানাশক হিসেবে ডেক্সামেথাসোন ব্যবহার করলে ডোপিং ফর্মে সেটি উল্লেখ করতে হয়। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের খুশিতে রামোসের ডোপিং রিপোর্টে সেটি যুক্ত করতে ভুলে গিয়েছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের প্রধান চিকিৎসক। এর পুরো দায় নিজের কাঁধে নিয়ে ওই চিকিৎসক ক্ষমা চাওয়ায় তার মানবিক ভুলের জন্য রামোসকে আর শাস্তি দেয়নি উয়েফা। -গোল ডটকম/-যুগান্তর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ