প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নওফেলের জন্য কপাল পুড়ল বাবলুর!

মো.ইউসুফ আলী বাচ্চু ও সাব্বির আহমেদ : এবার প্রার্থীতার দৌড়ে নিশ্চিত হয়েছেন চট্রগামের প্রয়াত মেয়র এবি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। আর এটি নিশ্চিত করতে গিয়ে কপাল পুড়েছে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের ভাগনি জামাই জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর। তার পরিবর্তে চট্টগ্রাম-৯ (কোতয়ালী-বাকলিয়া) আসনে মহাজোটের প্রার্থী করা হয়েছেন নওফেল।

জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৯ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে জাতীয় পার্টির মহাসচিবের পদ হারানোর পর বাবলুকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বিশেষ সহকারী করা হয়।

২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী অ্যাডভোকেট আবু হানিফকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া বাবলু ২০১৭ সালে এরশাদের ভাগনি মেহেজেবুন্নেছা রহমান টুম্পাকে বিয়ে করেন। ৬০ বছর বয়সে ওই বিয়ের পিঁড়িতে বসার আগে ২০০৫ সালে জিয়াউদ্দিন বাবলুর স্ত্রী ক্যান্সারে মারা যান।

জিয়াউদ্দিন বাবলু ১৯৮৩ সালে ফরিদা সরকারকে বিয়ে করেন। ফরিদা সরকার ছিলেন ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা। ২০০৫ সালে ক্যান্সারে মারা যান ফরিদা সরকার। তখন তাদের একমাত্র ছেলে আশিক ছোট। ছেলের কথা ভেবেই দ্বিতীয় বিয়ে করতে রাজি হননি বাবলু।

সত্তরের দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ও প্রতাপশালী ছাত্রনেতা ছিলেন বাবলু। ডাকসুর জিএস ছিলেন। এরশাদ সরকারের জ্বালানি উপদেষ্টা, শিক্ষা উপদেষ্টা ছাড়াও পরবর্তী সময়ে এই দুই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং পর্যটনমন্ত্রীও ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ