প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেন তারা মনোনয়ন প্রত্যাশী?

মোহাম্মদ আবদুল অদুদ : আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট ও বিএনপির নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা ৮ সহস্রাধিক। সংখ্যাধিক্য নিয়ে সাংগঠনিক দূর্বলতার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী। ৩০ হাজার টাকা খরচ করে এমন মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়া নিয়ে নানা কথা ভেসে আসছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কেউ কেউ বলছেন, এটা কোন ব্যাপারই না। তবে বিভিন্ন মনোনয়ন প্রত্যাশীর কথায় বেরিয়ে এসেছে ৪টি সুনির্দিষ্ট কারণ। ক. শেখ হাসিনা / তারেক রহমানের সাথে সাক্ষাৎকারের সুযোগ, যদিও তা হয়নি। খ. নিজ এলাকা ও মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচার এবং অবস্থান তৈরি। গ. নেতিবাচক ব্যক্তিগত বা রাজনৈতিক ইতিহাস থাকলে তা ঢেকে নতুন পরিচয় উপস্থাপন এবং ঘ. রাজনৈতিক বা ব্যবসায়িক ভবিষ্য কে সুদৃঢ়করণ।

সেজন্য তারা দল ও জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণে হাইপ্রোফাইল নেতাদের সাথে তোলা পুরনো ছবি মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করছে। দলের দুঃসময়ে দলের জন্য তাদের অবদানের কথা তুলে ধরছে। কোথাও অনুদান দিয়ে থাকলে তা প্রচার করছে। এমনই একজন পাবনা-২ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ টিটু। তিনি জানান, আমি জিয়া পরিবারের একজন বিশ্বস্ত সৈনিক, এটা প্রমাণ করতে চাই। জেল-জুলুম থেকে শুরু কওে দলে আমার অনেক অবদান, যা নেতৃবৃন্দ জানেন। তবু দল মনোনয়ন না দিলে ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুতি নেবো। কুমিল্লা-৫ নির্বাচনী এলাকা থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রিন্সিপাল মোহাম্মদ আলী চৌধুরী মানিক বলেন, পরিচিতি ও ভবিষ্যতের পথ উন্মুক্ত করতে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছি। তবে দল যাকে মনোনয়ন দেবে আমি তার জন্য কাজ করবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ