Skip to main content

এনজিও ঋণের খবর স্বামী জেনে ফেলায় গৃহবধূর বিষপানে আত্মহত্যা

জামাল হোসেন খোকন : জীবননগর বালীহুদায় গ্রামে এনজিও ঋণের খবর স্বামী জেনে ফেলায় শনিবার রাতে বিষপান করে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। নিহত গৃহবধূ জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের বালীহুদা গ্রামের সাইফুল ইসলামের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৩২)। এলাকাবাসী সূত্র থেকে জানা গেছে,জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের বালীহুদা গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে সাইফুল পার্শ্ববর্তী কোটচাঁদপুর হরিনদিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছোট বোন জেসমিনের সাথে ৭-৮ বছর আগে বিয়ে করে। সংসার জীবনে সামিয়া নামের ৬ বছরের এক কন্যা সন্তান নিয়ে বেশ সুখেই জীবনযাপন করতে ছিলো তারা। হঠাৎ করেই সাইফুলের সংসারের অভাব বাসা বাধে। সংসারের স্বচ্ছতা আনতে স্ত্রী জেসমিন স্বামী না জানিয়ে জৈনক এক মহিলাকে দিয়ে এনজিও থেকে ৩০ হাজার টাকা লোন নেন। এনজিও ঋণের কিস্তির টাকা সময় মতো না দিতে পারায় এনজিও কর্মীরা জেসমিনকে চাপ দিলে। ঋণের খবরটি স্বামী জেনে যায়। এতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে। শনিবার বিকালে জেসমিন বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে তাকে উদ্ধার করে দ্রুত জীবননগর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা করে হাসপাতালে ভর্তি রাখেন। একপর্যায়ে রাত্রি সাড়ে ৮ টার দিকে জেসমিন মৃত্যুর কোলে ঢুলে পরেন। এব্যাপারে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ গনি মিয়া জানান,বালীহুদা গ্রামের এক গৃহবধূ বিষপান করে জীবননগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়ার খবর শুনে পুলিশের একটি টিম তাৎক্ষণিক হাসপাতালে পাঠিয়েছি। আমারা গৃহবধূর লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে একটি অপমৃত্যুর মামলা নিয়ে লাশ চুয়াডাঙ্গা মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। ময়না তদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা সম্ভব হচ্ছেনা হত্যা নাকি আত্মহত্যা ।