Skip to main content

‘রেকর্ডের পরে জয় আনন্দটা দ্বিগুণ করে দিয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামে উইন্ডিজদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের ১৩ রানে চার উইকেট নিয়ে লাগামটা একবার ধরেই ফেলেছিল সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু ব্যাট হাতে এই উইকেটে ম্যাচের লাগাম ধরে রাখাটা কষ্টকর ছিল উইন্ডিজদের জন্য। প্রথম ইনিংসে মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম এবং নাঈম হাসানের স্বল্পরানের জুটি বাংলাদেশকে একধাপ এগিয়ে দিয়েছে চট্টগ্রাম টেস্টে। এখানেই ম্যাচের মোড় ঘুরে গিয়েছিল, ধারণা টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। তবে অল্প রানের লক্ষ্যেই যে ম্যাচটি জেতা সম্ভব চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনই বুঝে গিয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং আরও ভালো হওয়া দরকার ছিল বলে মনে করছেন তিনি। ‘ম্যাচে টার্নিং পয়েন্ট অনেক গুলো। এমন ম্যাচে ছোট ছোট জিনিস গুলোই অনেক বড় হয়ে যায়। এটা ওদের পক্ষেও আছে, আমাদের পক্ষেও আছে। ছোট ছোট কিছু জুটি আছে যা আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। আর বড় দিক থেকে বলতে গেলে আমাদের প্রথম ইনিংসের রানটা বাড়তি সুবিধা দিয়েছে।’ ‘যদিও আমার ধারনা সেকেন্ড ইনিংসে আমরা আরেকটু ভালো করতে পারতাম। কিন্তু এ ধরনের উইকেটে এমন হতেই পারে। ওই সম্পর্কে আমরা সবাই অবগত ছিলাম। আমরা জানতাম ম্যাচটা এমন টাইপেরই হবে, হাই স্কোরিং হবে না, প্রথম দিন উইকেটটা দেখার পর’- ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন সাকিব। মাত্র ২০৪ রানের লক্ষ্যেই ৬৪ রানে ম্যাচটি জিতে যায় বাংলাদেশ। দেশের মাটিতে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের এই প্রথম টেস্ট জয় উৎফুল্ল করেছে পুরো দলকে। পাশাপাশি সাকিব পেয়েছেন টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ২০০ উইকেট। রেকর্ডের সাথে জয়, ভালো লাগাটা দ্বিগুণ করেছে সাকিবের। জয় না পেলে রেকর্ডের আনন্দ ম্লান হয়ে যেত বলে জানিয়েছেন সাকিব। নিজের অনুভূতি সম্পর্কে সাকিব বলেন, ‘২০০ উইকেট পাওয়ার পর অনুভূতিটা ভালো হতো না যদি না জিততাম। যেহেতু জিতেছি এখন অনুভূতিটা অনেক ভালো।’