প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থেই এক হতে হবে: ফারুক

মহিব আল হাসান : চলচ্চিত্রের স্বার্থে সবাইকে একসাথে নিয়ে কাজ করতে হবে। বর্তমান ঢাকাই ছবির যে সংকটাপন্ন অবস্থা তা থেকে বের হতে সবাইকে এক হতে হবে। ঢাকাই ছবির শুরু থেকেই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে প্রযোজক ও পরিবেশকদের মধ্যে মতের অমিল ছিল। সেগুলো বসে কথা বলে ঠিক হতো। এখন দেশে জাজ মাল্টিমিডিয়া যেভাবেই হোক হলগুলো টিকে রাখছে। তারা হলে প্রজেক্টর ভাড়া দিয়ে টাকা বেশি পরিমাণ নিচ্ছে এমন অভিযোগের বিষয়টি কথা বলে নিলে ঠিক করা সম্ভব। প্রয়োজনে আব্দুল আজিজের সাথে কথা বলে সম্যাসার সমাধান করা হবে। কথাগুলো বললেন বাংলা চলচ্চিত্রের মিয়া ভাই খ্যাত কিংবদন্তি চিত্রনায়ক ফারুক।

এফডিসিতে আয়োজিত জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজিত মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘দহন’ ছবির ট্রেলার প্রকাশে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথা থাকলেও অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি তিনি। তবে এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে তার শুভকামনা জানিয়েছেন।

চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক হয়ে যে আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন জাজ মাল্টিমিডিয়ার বিরুদ্ধে সেটা কী তাহলে এখন আর থাকবে না? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে। যেখানে অন্যায় হবে সেখানে অব্যশই কথা বলব। জাজ মাল্টিমিডিয়া যদি অন্যায় কিছু করে তার প্রতিবাদ অবশ্যই হবে। তবে একসাথে কাজ করলে আমাদের এ ইন্ডাস্ট্রির আরও এগিয়ে যাবে। এই সংকট সময়ে চলচ্চিত্রের সার্থে চলচ্চিত্র প্রেমিক দরকার। এখানে চলচ্চিত্র পরিবার ও জাজ মাল্টিমিডিয়া এক হলে দোশের কিছু নেই।

বর্ষীয়ান এই অভিনেতা আরও বলেন, চলচ্চিত্রে যারা কাজ করেন তারা আমার আত্মার মানুষ। ফিল্ম ছাড়া জীবনে আর কিছুই ভাবিনি। চলচ্চিত্রের মানুষের ভালোবাসায় আমি ফারুক হতে পেরেছি। আপনাদের কাছে আমার একটাই চাওয়া সবাই এক হয়ে কাজ করুন। সব বিভেদ ভুলে এক হয়ে যান। চলচ্চিত্র পরিবার ও জাজ মাল্টিমিডিয়া একসাথে কাজ করে এগিয়ে নিয়ে যাক বাংলা ছবিকে।

যৌথ প্রযোজনার নামে প্রতারণার ছবি নির্মাণের অভিযোগে জাজ মাল্টিমিডিয়ার বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে অবস্থান নিয়ে রয়েছে চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠন নিয়ে গড়া প্লাটফর্ম ‘চলচ্চিত্র পরিবার’। গত ২২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ‘দহন’ ছবির ট্রেলার প্রকাশ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে জাজের পক্ষ থেকে সকল সংগঠনের নেতাকর্মীদের আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়। তবে অনুষ্ঠানে কোনও উপস্থিতি চোখে পড়েনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ