প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ক্ষমতার জন্য ঝাড়ুদাররাও এমপি-মন্ত্রী হতে চায়’

রবিন আকরাম : সংসদ-নির্বাচন আমাদের দেশের সব নেতাদের একযোগে আত্মপ্রকাশের সুযোগ করে দেয়। যে যেই বিষয়ে পারদর্শী হোন না কেন, সবাই এমপি হতে চান। এমপি পদটি এখন খুবই সাধারণ হয়ে গেছে। ঝাড়ুদার-দোকানদার-আমলা-পকেটমার-যন্ত্রী-মন্ত্রী যারই পকেটের জোর আছে, সে-ই এখন এমপি হতে চান বলে মন্তব্য করেছেন লেখক ও কলামিস্ট চিররঞ্জন সরকার।

শুক্রবার অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন-এ তিনি এসব কথা লিখেছেন।

চিররঞ্জন সরকারের ভাষায়, এসব নেতারা কোনও একটা পার্টির মনোনয়নপত্র কেনেন। তারপর দাপিয়ে বেড়ান ভোটারের সমর্থন পাওয়ার জন্য। বড় দলগুলোতে এক আসনেই ১০ থেকে ১৫ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। তারা সবাই চান এমপি হতে। এলাকার মানুষের ‘সেবা’ করতে। যেন এমপি না হলে মানুষের ‘সেবা’ করা যায় না!

বিভিন্ন সব গুণের মানুষেরা এখন ‘নির্বাচন-সরোবরে’ অবগাহনের জন্য একাত্ম হয়েছেন। পাপী-তাপী-পুণ্যবান-সবাই যেমন তীর্থে যান, ঠিক তেমনি সবাই নির্বাচন নামক তীর্থ-কেন্দ্রে পৌঁছানোর সাধনায় মশগুল। সবাই নির্বাচন করতে চায়, এমপি হতে চায়, সেবা করার সুযোগ চায়!

এই হাল-জমানার এই নেতাদের কাছে দেশ বড় কথা নয়, আদর্শ বড় কথা নয়, ক্ষমতাই বড় কথা। চেয়ার দখলই বড় কথা। তাই ক্ষমতার লড়াইয়ে তারা পরস্পর অসম প্রতিযোগিতায় মাঠে নেমেছে।

কেন সবাই নেতা হতে চায়? কেন আর কর্মী থাকতে চায় না কেউ? কারণটা একেবারে সোজা। নেতা পদবিটি এখন খুবই আকর্ষণীয় এবং লাভজনক। নেতা পরিচয়ে পরিচিত হতে পারলে জীবনে উন্নতির সিঁড়ি খুঁজে পেতে তেমন সমস্যা হয় না। অর্থ-বিত্ত-ক্ষমতা-দাপট সবকিছু এসে ধরা দেয়। তাই সবাই এখন নেতা হতে চায়। এ জন্য কে কাকে ল্যাং মেরে ওপরে উঠবেন সে কসরতে লিপ্ত সবাই। আর কার চেয়ে কে বড় নেতা, এটা জাহির করতে এমন কোনও হীন কাজ নেই যা তারা করতে পারেন না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ