প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কী হয় রাতের গুলশান–বনানীতে?

প্রথম আলো : বহু বছর ধরেই রাজধানী ঢাকার গুলশান–বনানী দেখছেন নুহাশ হুমায়ূন। অনেক পরিবর্তন কিংবদন্তি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের সন্তান নির্মাতা নুহাশের চোখে ধরা পড়েছে। তাঁর মতে, গত এক বছরে গুলশান–বনানীর অনেক পরিবর্তন হয়েছে। এই পরিবর্তন তাঁর চোখে ধরা পড়েছে ভালোভাবে। যাঁরা এই পরিবর্তনের খবর জানেন না, তাঁদের তা দেখাতে চান নুহাশ। কী হয় রাতের গুলশান–বানানীতে, তা দেখানোর জন্য বানিয়েছেন ৪০ মিনিট ব্যাপ্তির একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। ‘পিৎজা ভাই’ নামের সেই চলচ্চিত্রের সম্পাদনা চলছে। পরিচালনার পাশাপাশি এই চলচ্চিত্রের রচয়িতাও তিনি।

‘পিৎজা ভাই’ চলচ্চিত্রটি ২৪ নভেম্বর অনলাইন প্ল্যাটফর্ম বায়োস্কোপ অরিজিনালসে দেখা যাবে। আজ বিকেলে ছবিটি নিয়ে যখন নুহাশের সঙ্গে কথা হচ্ছিল, তখন তিনি সম্পাদনায় ব্যস্ত ছিলেন। এর মধ্যেও সময় নিয়ে কথা বললেন, ‘পিৎজা ভাই’ নির্মাণ নিয়ে তাঁর ভাবনার কথা। ‘আজকাল মোবাইলের অ্যাপের মাধ্যমে অনেকে পিৎজা অর্ডার করে থাকেন। অ্যাপে অর্ডার করা পিৎজা বাসায় পৌঁছে দেন যাঁরা, তাঁদের পথের গল্প অনেকেই জানেন না। তাঁদের কেউ মাদক ব্যবসায়ও জড়িয়ে যান। পিৎজার সঙ্গে হাত ধরে গুলশান–বনানীতে ছড়িয়ে পড়ে মাদক। চারপাশটা কীভাবে যেন বদলে যায়। এটা আমাকে ভাবিয়েছে। তাই তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।’ বললেন নুহাশ হুমায়ূন।

নুহাশ হুমায়ূন বলেন, ‘আমার দৃষ্টিতে গুলশান–বনানীর পরিবেশ এখন অনেক বদলে গেছে। বিশেষ করে ২০১৭ সালের পর এসব এলাকায় অনেক বেশি চেকপোস্ট। অনেক নিয়মনীতি। এখানকার মানুষের মধ্যে ভয় ভয় ব্যাপারও কাজ করে। একজন পিৎজা বয়কে খালি চেকপোস্টে আটকানো হচ্ছে। কেন তাঁকে এভাবে আটকানো হচ্ছে? পার্থ নামের একটি চরিত্রের মধ্য দিয়ে সেই ইন্টারেস্টিং চিত্র তুলে ধরতে চেয়েছি।’

আলফা আই মিডিয়া ব্যানারে নির্মিত এই চলচ্চিত্রে পিৎজা ভাই চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাহাত রহমান। অন্য অভিনয়শিল্পীরা হলেন মিশৌরী রশীদ খান, জুনেয়না ফ্রান্সিস কবীর, বায়েজীদ হক জোয়ার্দার প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ