প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৩৬৫ দিনই জনগণের ক্ষমতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে : খালেকুজ্জামান

উল্লাস মূর্তজা : জনগণের হাতে ১ দিনের জন্য ক্ষমতা দিয়ে তাও আবার মাঝেমধ্যে কেড়ে নেওয়া হয়। বছরের ৩৬৫ দিনই জনগণের হাতে ক্ষমতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জমিদারি প্রথা যদি বহাল থাকে নায়েব গোমস্তাদের স্বাধীনতার কোনো মানেই হয়না ।তিনি বলেন, আমাদের পার্লামেন্ট আছে, মন্ত্রিসভা আছে ওনারা এখন নাই, রাজা রাজ পোশাক ছেড়ে সিভিল পোশাকে চলছেন তাতে জনগণের উন্নয়ন নষ্ট হবে না। শুক্রবার সকালে ‘যমুনা টিভি’র একটি ‘টক শো’তে এসব কথা বলেন, বাসদ নেতা কমরেড খালেকুজ্জামান।

তিনি বলেন, ‘সাম্যের জায়গায় বৈষম্য দিনদিন বাড়ছে এবং ক্ষমতার মূল মালিক ছিটকে পড়ছে। মুষ্ঠিমেয় কিছু লোক অঢেল সম্পত্তির মালিক হচ্ছে আর সাধারণ মানুষ দিনদিন বঞ্চিত হচ্ছে। বিবিএস এর রিপোর্টে বলা হয়েছে, সর্ব্বোচ ধনী ৫ ভাগ, তাদের আয় বেড়েছে ৫৭ ভাগ অপরদিকে সর্বনিন্ম যে গরীব তার আয় কমে গেছে ৫৯ ভাগ। এটা সরকারি তথ্য। এর মাধ্যমে ক্ষমতা কেন্দ্রিক একটা বলয় তৈরি হচ্ছে। সেই বলয়ে কাকে সুবিধা দেওয়া যাবে আর কে অধিকার বঞ্চিত হবে সেটা ভিন্নমত। গত ৬ নভেম্বর ১৭ পুলিশ কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত আইজিপি ও ডিআইজিতে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। ২৫০ জনের পদোন্নতির সিদ্ধান্ত নেওয়া আছে, অতিরিক্ত ১৬০ জনকে যুগ্নসচিব করা হয়েছে। ফলে আমলাতন্ত্র দক্ষতা বা মেধার ভিত্তিতে না হয়ে তারা শাষন কার্যে সরকারকে কতটুকু সহযোগিতা করতে পারবে সেটাই এখন মুখ্য ব্যাপার। ফলে বাড়ছে বেকারত্ব ।’

কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, ‘দলীয় সরকারের অধীনে যখন নির্বাচন হয় তখন তার আকার ভিন্ন হয়। এ পর্যন্ত আমাদের দেশে ৬ বার দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়েছে কিন্তু সরকারের কোনো পরিবর্তন হয়নি। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন কমিশন থাকলে আস্থার ঘাটতি থাকবেই। নির্বাচন কমিশন আস্থার ঘাটতি পূরণের বদলে আরও নতুন সংকট তৈরি করছেন। নির্বাচন কমিশনকে আরও সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন ছিল। এমনিতেই নির্বাচন কমিশনকে নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। তারা নিজেরাই তাদের আস্থার জায়গা হারাচ্ছেন।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ