প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২৪৬ রানে শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, টাইগার বােলার নাঈমের ৫ উইকেট

নিজস্ব প্রতিবেদক : অভিষিক ক্রিকেটার নাঈম হাসানের স্পিন বিষে বাংলাদেশের ৩২৪ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৪৬ রানেই গুটিয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টাইগাররা পেয়েছে ৭৮ রানের লিড।

১৪ ওভার বল করে ৬১ রান খরচায় ৫ উইকেট নিয়েছেন নাঈম। চোট থেকে ফেরা অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ৩টি, তাইজুল ইসলাম আর মেহেদী মিরাজ নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

ক্যারিবীয় ইনিংসের ১১তম ওভারের প্রথম বলে কাইরন পাওয়েলকে (১৪) এলবির ফাঁদে ফেলে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন তাইজুল। তাতেই নতুন রেকর্ড গড়েছেন তাইজুল ইসলাম। সাবেক স্পিনার মোহাম্মদ রফিকের এক বছরে নেয়া ৩৩ উইকেট নেয়ার রেকর্ড ভেঙে বাংলাদেশের পক্ষে নির্দিষ্ট বছরে ৩৪টি উইকেট নেয়ার রেকর্ড গড়েছেন তিনি।

ঠিক পরের ওভারে প্রথম বলেই শাই হোপকে (১) বোল্ড করেন সাকিব। এরপর ষষ্ঠ বলে ক্যারিবীয় অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ফেরান টাইগার দলপতি। মাঝখানে সুনিল আমব্রিসের ক্যাচ ফেলেছেন মুশফিকুর রহিম।

সাকিব আল হাসান আর তাইজুলের ঘূর্ণিতে দিশেহারা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পথ দেখাচ্ছিলেন রস্টন চেজ। চতুর্থ উইকেটে সুনীল আমব্রিসের সঙ্গে জুটি গড়েন তিনি। তবে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই চেজকে (৩১) প্যাভিলিয়নে ফিরিয়েছেন অভিষিক্ত নাঈম হাসান। ১৭ বছর বয়সী এই অফস্পিনারের টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সাফল্য এটি। এরপর আমব্রিসকেও (১৯) তুলে নেন নাঈম। ৮৮ রানে ৫ উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

এরপর টি-টোয়েন্টি মেজাজে ব্যাট চালানো শুরু করেন শিমরন হেটমায়ার। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ক্যারিবীয়রা। পঞ্চম উইকেটে ডওরিচের সঙ্গে ৯২ রানের জুটি গড়ার পর হেটমায়ারকে থামান মেহেদী হাসান মিরাজ। দলীয় ১৮০ রানে এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান উইকেটের পেছনে মুশফিকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। আউট হওয়ার আগে ৫ চার আর ৪ ছক্কায় ৪৭ বলে ৬৩ বলে রান করেছেন হেটমায়ারা। ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৮৭ রান তুলে চা বিরতিতে যায় ক্যারিবীয়রা।

বিরতির পর জোড়া আঘাত হানেন নাঈম। ৬ রানের ব্যবধানে দেবেন্দ্র বিশু আর কেমার রোচকে ফেরান এই অফস্পিনার। জোমেল ওয়ারিকানকে নিয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন ডওরিচ। কিন্তু তা হতে দেননি নাঈম। দলীয় ২২৫ রানে ওয়ারিকানকে (১২) সরাসরি বোল্ড করেন তিনি। এরপর শ্যানন গ্যাব্রিয়েলকে (৬) ফিরিয়ে ২৪৬ রানে ক্যারিবীয়দের ইনিংসের ইতি টানেন সাকিব।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন শেষে ৮ উইকেটে ৩১৫ রান সংগ্রহ করেছিল বাংলাদেশ। শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি স্বাগতিকরা। স্কোরবোর্ডে আর ৯ রান যোগ করে প্রথম ইনিংসে ৩২৪ রানে আলআউট হয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। টেস্টে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে এটি টাইগারদের ষষ্ঠ সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ।

এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দ্বিতীয় দিনের খেলা। কারণ হিসেবে জানা যায়, ম্যাচ রেফারি ডেভিড বুনের মা পরলোকগমন করেছেন। চট্টগ্রাম টেস্টের দায়িত্ব থেকে তাকে বিশ্রাম দিয়েছে আইসিসি। এই ম্যাচের জন্য তার জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন বাংলাদেশের শিপার আহমেদ।

দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশের ইনিংস টিকেছে মাত্র ২৮ বল। প্রথম চার ওভার নির্বিঘ্নেই কাটিয়ে দিয়েছিলেন আগের দিন অপরাজিত থাকা তাইজুল ইসলাম আর নাঈম হাসান। কিন্তু জোমেল ওয়ারিকানের করা ৯৩তম ওভারের প্রথম বলেই শাই হোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নাঈম। ৭৪ বল মোকাবেলায় ২ বাউন্ডারিতে ২৪ রান করেছেন অভিষিক্ত এই ক্রিকেটার।

পরের বলেই এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন মোস্তাফিজ। কিন্তু রিভিউ নিয়ে এ যাত্রায় বেঁচে যান তিনি। তৃতীয় ডেলিভারিতে আবারও এলবিডব্লিউ হন মোস্তাফিজ। এবার রিভিউ নিলেও আর রক্ষা হয়নি তার। বাংলাদেশ অলআউট হয় ৩২৪ রানে।

৬৮ বলে ৩৯ রানে অপরাজিত ছিলেন তাইজুল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে সমান ৪টি করে উইকেট দখল করেছেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল আর ওয়ারিকান। দেবেন্দ্র বিশু আর কেচার রোচ নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত