প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নাজমুল হুদার রায়ের নথি বিচারিক আদালতে

রাইজিং বিডি : ঘুষ নেওয়ার মামলায় প্রাক্তন মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের নথি বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট থেকে ঢাকার ২ নম্বর বিশেষ জজের বিচারিক আদালতে পৌঁছেছে।

এদিকে চার দলীয় জোট সরকারের প্রাক্তন এ যোগাযোগ মন্ত্রী আগামী সপ্তাহে এ মামলায় বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারেন বলে সূত্রে জানা গেছে।

বিগত সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ২০০৭ সালের ২১ মার্চ দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম ধানম-ি থানায় হুদা দম্পতির বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন।

সাপ্তাহিক পত্রিকা ‘খবরের অন্তরালে’র জন্য ব্যবসায়ী মীর জাহের হোসেনের কাছ থেকে ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে মামলাটি করা হয়।

মামলার বিচার শেষে ঢাকার ২ নম্বর বিশেষ জজ ২০০৭ সালের ২৭ আগস্ট নাজমুল হুদাকে সাত বছরের কারাদণ্ড এবং আড়াই কোটি টাকা অর্থদ-ের রায় প্রদান করেন। রায়ে তার স্ত্রী সিগমা হুদাকে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে হুদা দম্পতি আপিল করলে ২০১১ সালের ২০ মার্চ হাইকোর্ট তাদের খালাস দেন। খালাসের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক আপিল করলে আপিল বিভাগ ২০১৪ সালের ১ ডিসেম্বর হাইকোর্টের খালাসের রায় বাতিল করে পুনরায় শুনানির নির্দেশ দেন।

হাইকোর্ট পুনরায় শুনানি শেষে গত বছর ৮ নভেম্বর নাজমুল হুদার সাত বছরের সাজা কমিয়ে চার বছর এবং সিগমা হুদার ৩ বছরের সাজা কমিয়ে মামলাটিতে যতদিন কারাভোগ করেছেন তা কারাদ- হিসেবে রায় দেন। ওই রায় গত ১৮ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ পায়। রায়ে নি¤œ আদালতে আদেশ পৌঁছানোর ৪৫ দিনের মধ্যে নাজমুল হুদাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট বেঁধে একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার তোড়জোড়ের মধ্যে আদালতের এ রায় প্রকাশ হওয়ায় মুশকিলে পড়েছেন নাজমুল হুদা। কারণ, এখন নি¤œ আদালতে আত্মসমর্পণ করে তিনি আপিল বিভাগে আপিল করে জামিন পেলে এবং হাইকোর্টের দণ্ড স্থগিত হলেই কেবল নির্বাচন করতে পারবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ