প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রায়পুরায় সংঘর্ষের ঘটনায় নিখোঁজ দুই জনের লাশ উদ্ধার

খন্দকার শাহিন, মাধবদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর রায়পুরার চরাঞ্চল বাঁশগাড়ী ও নিলক্ষা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় নিখোঁজ দুই জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২২ নভেম্বর) সন্ধায় আব্দুল হাই (২৮) ও কাউছার (২৫) নামে দুজনের মরদেহ মেঘনা নদী থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সংঘর্ষের ঘটনায় ৩ জন নিহত ও দুই জনের লাশ গুম হয়েছে বলে পৃথক ৩টি মামলা দায়ের করা হয় বলে জানান নিহতর স্বজনরা।

রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন উল কাদির বলেন, চরাঞ্চলে সংঘর্ষে তিনটি হত্যার ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। স্বজনদের অভিযোগের ভিত্তিতে নিখোজ দু’জনের বিষয়ে উদ্ধার অভিযান নামে পুলিশ। অবেশেষে বৃহস্পতিবার সন্ধায় দুজনের মরদেহ মেঘনা নদী থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১৬ নভেম্বর) সকালে রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চল বাঁশগাড়ীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চলমান বিরোধের জের ধরে প্রয়াত চেয়ারম্যান সিরাজুল হকের অনুসারী কবির সরকারের নেতৃত্বে প্রতিপক্ষ সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত হাফিজুর রহমান শাহেদ সরকারের অনুসারী জাকির হোসেনের সমর্থকদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে তোফায়েল রানা নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়। আহত হয় কমপক্ষে ১৫ জন।

ঐ ঘটনার জের ধরে একইদিন দুপুর থেকে সন্ধ্যা পযন্ত নিলক্ষা ইউনিয়নেও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের অনুসারী ছমেদ আলীর নেতৃত্বে প্রতিপক্ষ সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হকের অনুসারী শহিদ মেম্বারের সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এতে দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে প্রথমে তাজুল ইসলামের সমর্থক সোহরাব হোসেন (৩৫) ও পরে আবদুল হক সরকারের সমর্থক স্বপন মিয়া (৩৬) গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হয় কমপক্ষে ৪০ জন। এ ঘটনায় পুলিশ নিলক্ষা এলাকা থেকে ৯টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৪ রাউন্ড গুলিসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি অস্ত্র মামলা দায়ের করে পুলিশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ