Skip to main content

শুক্রবার ফেড কাপের ফাইনালে মুখোমুখি আবাহনী ও বসুন্ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : এক দলের সামনে শিরোপা ধরে রাখার মিশন। অন্যদিকে প্রথমবার সুযোগ পেয়েই ফাইনালে ওঠার আনন্দ। তারাও শিরোপা দিয়েই আসর শুরু করতে চাইবে। দু’দলের সামনে দারুণ অর্জনের হাতছানি। আবাহনী লিমিটেডের সামনে এককভাবে ফেডারেশন কাপের সর্বোচ্চবারের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ। প্রথমবারে খেলতে এসে বাজিমাতের সুযোগ বসুন্ধরা কিংসের। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আগামীকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ৪টায় মুখোমুখি হবে বসুন্ধরা কিংস ও আবাহনী লিমিটেড। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে সেরা হয়ে ঘরোয়া ফুটবলের শীর্ষ পর্যায়ে আসা বসুন্ধরা শক্তিশালী দল গড়ে দলবদলের সময়ই চমকে দিয়েছিল। ফেডারেশন কাপে শুরুটাও করেছিল মোহামেডানকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ফাইনালে আসার পথে সাবেক দুই চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে হারায় দলটি। এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১৩ গোল দিয়ে বসুন্ধরা খেয়েছে ৫টি। বসুন্ধরা কিংসের স্লোগান, সেটা হলো বর্ন টু বিট দিয়ে শুরু হওয়া সংবাদ সম্মেলনে আজ তারা বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্যই চ্যাম্পিয়ন হব। গ্রুপ পর্বে দুটি ম্যাচে সমস্যা হলেও আমরা এখন ফাইনালে উঠেছি। ভালো খেলে আবাহনীর মতো জায়ান্টকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হতে চাই।’ গ্রুপ পর্বে আবাহনীর শুরুটা ছিল সাদামাটা। একটি করে জয়-হারে গ্রুপ রানার্সআপ হওয়া দলটি পরে নিজেদের গুছিয়ে নেয় অনেকটা। সেরা আটে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩-২ ব্যবধানে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘকে হারানোর পর সেমিফাইনালে সানডে চিজোবার হ্যাটট্রিকে শেখ জামালকে হারায় ৪-২ গোলে। এ পর্যন্ত ৮ গোল দিয়ে ৫টি খেয়েছে আবাহনী। কোচ জাকারিয়া বাবু অবশ্য গত দুই ম্যাচের নৈপূণ্য চাইছেন শিষ্যদের কাছে। ‘ফাইনালের জন্য আমরা প্রস্তুত। স্বাভাবিক নিয়মে আবাহনী আবাহনীর জায়গায় চলে এসেছে। আশা করি গত দুই ম্যাচের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে চ্যাম্পিয়ন হতে পারব।’ এদিকে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড চিজোবার সঙ্গে আফগানিস্তানের মাসিহ সাইঘানি ও হাইতির কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্টে সাজানো আবাহনীর আক্রমণভাগও ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে যেকোনো মুহূর্তে। একটি করে হ্যাটট্রিকসহ ৪টি করে গোল নিয়ে সেরা গোলদাতা হওয়ার লড়াইয়ে থাকা সোলেরা বনাম চিজোবার দ্বৈরথের দিকেও তাকিয়ে থাকবে দুই দল। এ লড়াইয়ে আবাহনী কোচ জাকারিয়া এগিয়ে রাখছেন নিজের শিষ্যকে।