প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রধানমন্ত্রীকে কিছু বলারও সুযোগ পাননি তারা…

আসাদুজ্জামান সম্রাট : আওয়ামী লীগের খসড়া মনোনয়ন তালিকায় নিজেদের নাম নেই জেনে বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে গেলেও তারা কথা বলতে পারেননি।

বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত সংসদ সদস্য ও দলীয় নেতারা গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎকালে মনোনয়ন বঞ্চিত নেতারা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে। প্রধানমন্ত্রীও ধৈর্য্যসহকারে মনোনয়ন বঞ্চিতদের কথা শোনেন এবং তাদের কথাগুলো নোট নেন।

ওই সাক্ষাতে অংশ নেয়া এক নেতা জানিয়েছেন, পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য একেএমএ আউয়াল (সাইদুর রহমান), যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য মনিরুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য গণভবনের সাক্ষাৎকালে থাকলেও তারা কথা বলতে পারেননি। মধ্যরাত পর্যন্ত অপেক্ষার পর তারা বিরস বদনে ফিরে আসেন।

পিরোজপুর-১ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য একেএমএ আউয়ালের স্থলে দলের আইন বিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম এবং যশোর-২ আসনে মনিরুল ইসলামের স্থলে মেজর জেনারেল (অব.) নাসির উদ্দিনের নাম খসড়া প্রার্থী তালিকায় রয়েছে। কিশোরগঞ্জ-২ আসনের এ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিনের আসনে সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ, নেত্রকোনা-১ আসনে ছবি বিশ্বাসের স্থলে মানু মজুমদার, নেত্রকোনা-৩ আসনে ইখতিয়ার উদ্দিন তালুকদার পিন্টুর আসনে অসীম কুমার উকিল, খুলনা-২ আসনে মিজানুর রহমানের আসছে শেখ সোহেল, ঝিনাইদহে নবী নেওয়াজের স্থলে শফিকুল আজম খানের নাম রয়েছে। বঞ্চিত সংসদ সদস্যরা শেষ মুহুর্তে নানা চেষ্টা তদ্বির চালাচ্ছেন স্ব স্ব মনোনয়ন রক্ষায়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার বক্তব্য শুনেছেন এবং যুক্তিযুক্তভাবে তা বিবেচনার আশ্বাস দিলে রাত পৌনে ১১টায় ওই বৈঠক সমাপ্ত হয়। বৈঠকে অংশ নেয়া শেরপুর-৩ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ঝিনাইগাতী আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএমএ ওয়ারেজ নাঈম জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী সবার কথা শুনেছেন। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন। তিনিই আমাদের আশা-ভরসার স্থল। আশা করি দলের স্বার্থে তিনি সঠিক সিদ্ধান্তই নেবেন।