প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বৈষম্যমুক্ত সমাজ সৃষ্টিতে নির্বাচনী ইশতেহার চেয়েছে ‘সিপিডি’

সাজিয়া আক্তার : সংসদ নির্বাচন ঘিরে রাজনৈতিক দলগুলোর মনোনয়ন ফর্ম বিতরণ শেষে ইশতেহার দেয়ার পালা। স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নত দেশ হতে বৈষম্যমুক্ত সমাজ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির নির্বাচনী ইশতেহার চেয়েছে গবেষণা সংস্থা ‘সিপিডি’। বৃহস্পতিবার রাজধানীর মহাখালীর ব্র্যাক সেন্টারে সিপিডির একটি অনুষ্ঠানে বিশ্লেষকরা বলেছেন, টেকসই অর্থনীতির জন্য প্রতিযোগিতাপূর্ন রাজনীতির প্রয়োজন। সূত্র : এটিএন নিউজ

৮ নভেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন তফসিল ঘোষণার পর মনোনয়ন ফর্ম বিক্রি শুরু করে রাজনৈতিক দলগুলো। নির্বাচনী উৎসবের আমেজে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ৮ হাজারের উপর ফর্ম বিতরণ করে।

এরই মধ্যে জাতীয় পার্টি, যুক্তফ্রন্টসহ বিভিন্ন দল ও জোট শেষ করে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার পর্ব। বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সিপিডি মনে করছে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় ব্যবসায়ীক গোষ্ঠীর উপস্থিতি দৃশ্যমান।

সিপিডির বিশেষ ফেলো. ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেছেন, কর অবকাশ, লাইসেন্স অথবা নতুন ব্যাংক করার চেষ্টা-এগুলো বিশেষ আনুক‚ল্যের ভিত্তিতে হয়েছে। তারা রাজনীতি দিয়ে রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাকে ব্যবহার করে এটাকে সুরক্ষা দিতে চায়। বাংলাদেশে এখন রাজনীতি সবচেয়ে বড় ব্যবসায়িক উদ্যোগ। যারা হলফনামায় ঘোষণা দিচ্ছেন, সেই হলফনামাগুলো দ্রæততার দেখে সাথে রাজস্ববোর্ড অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে একটি মূল্যায়ন জনগণের সামনে দেবেন। সংসদ সদস্যরা যখনি শপথ নেবেন, সাথে সাথে তাদের ব্যবসায়িক স্বার্থগুলোকে ঘোষণা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

সিপিডি বলছে, রাজনীতিবিদরা এ বৃত্তের বাইরে নয়। তারাও ব্যবসায়ী বনে যাচ্ছেন। এর ফলে ব্যবসা ও রাজনীতির মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠছে।

সিপিডির সম্মানীয় ফেলো ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে এখন উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে। সেখানে কাঠামোগত রূপান্তরের জন্য কী ধরনের বাংলাদেশ চান এবং কি পদক্ষেপের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করবে সেটা সম্পর্কে আমরা সুস্পষ্ট বক্তব্য আশা করাবো রাজনৈতিকদের ইশতেহারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ