প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপিকে চাপে রাখতে আগেই ভোটের মাঠে জামায়াত

মোহাম্মদ রুবেল : বিএনপিকে চাপে ফেলতে ভোটের মাঠে আগেভাগেই নেমেছে দলটির রাজনৈতিক মিত্র বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে দেশের ৬৪ আসনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন জামায়াত নেতারা। নিবন্ধন হারানো দলটির নেতারা মনোনয়নপত্র নিয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে।

নেতারা বলছেন, ২১ নভেম্বর দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সঙ্গে সাক্ষাৎকার শেষে আসন বণ্টনের পথে এগোবে বিএনপি। তখনই চূড়ান্ত হবে জামায়াতের প্রার্থিতা। তারপরই সিদ্ধান্ত হবে স্বতন্ত্র নাকি ধানের শীষ প্রতীকে লড়াই করবে দলটি।

জামায়াতের সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, ১৯৯১ সালের নির্বাচনে এককভাবে অংশ নিয়েছিল জামায়াত। সেবার দলটির ১৮ প্রার্থী নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে অংশ নিয়ে মাত্র তিনটি আসনে দলটির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

এরপর ২০০১ সালে বিএনপির সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয় জামায়াত। সেবার দলটির ১৭ জন প্রার্থী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৮ সালের নির্বাচনেও বিএনপির সঙ্গে জোটে থেকে ৩৫ আসনে অংশ নিয়েছিলো জামায়াত। উন্মুক্ত ছিলো আরও ৪টি আসন। কিন্তু সেবার মাত্র দুজন জামায়াতের প্রার্থী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

নিবন্ধন বাতিল হওয়া জামায়াত এবারও বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের জোটে রয়েছে। দুই দলের নীতিনির্ধারকদের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হলেও এখনও চূড়ান্ত হয়নি আসন বণ্টন।

জামায়াতের সূত্রগুলো বলছে, নিজে থেকেই ১০টি আসনে জামায়াতকে ছাড় দিতে চেয়েছে বিএনপি। তবে জামায়াত চেয়েছে ৬০ আসন। ২১ নভেম্বর দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সঙ্গে সাক্ষাৎকার শেষে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। তখনই চূড়ান্ত হবে স্বতন্ত্র নাকি ধানের শীষ প্রতীকে লড়াই করবেন জামায়াতের প্রার্থীরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ