প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শেয়ারের দরপতনে বিপুল অর্থ হারিয়েছেন প্রযুক্তিখাতের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা

নূর মাজিদ : মার্কিন প্রযুুক্তিখাতের কো¤পানিগুলোর বাজারমূল্য বা শেয়ারের দরপতনের প্রেক্ষাপটে বিপুল পরিমাণ অর্থ হারিয়েছেন এই খাতের ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা। অ্যাপল, ফেসবুক এবং গুগলের মতো বৃহৎ প্রযুক্তিখাতের শীর্ষ কো¤পানিগুলো থেকে বিনিয়োগকারীরা তাদের মূলধন নিরাপদ বিনিয়োগের দিকে স্থানান্তরিত করায় এই কো¤পানিগুলোর বাজারমূল্য উল্লেখযোগ্য পরিমাণ কমেছে। আর তাতেই এই কো¤পানিগুলোর শীর্ষ নির্বাহী এবং প্রযুুক্তিখাতের শীর্ষ বিনিয়োগকারীদের মোট স¤পদের পরিমাণ দ্রুতগতিতে কমছে। গত সেপ্টেম্বর মাসে মোট স¤পদের পরিমাণ ১৬৮ বিলিয়নে পৌঁছানোর পর থেকেই কমছে অ্যামাজন শীর্ষ নির্বাহী জেফ বেজোসের স¤পদমূল্য। সেপ্টেম্বর থেকে মার্কিন পুঁজিবাজারে অ্যামাজনের শেয়ারের মূল্য ২৫ শতাংশ কমেছে। ফলে বর্তমানে বেজোসের মোট স¤পদের পরিমাণ কমে ১২৬ বিলিয়ন ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে। যদিও এতে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর স্থান ধরে রাখার ক্ষেত্রে তার অবস্থার কোন পরিবর্তন আসেনি। গত মঙ্গলবারই বেজোস এবং তার স্ত্রী মেকেঞ্জি মার্কিন গৃহহীন নাগরিকদের আবাসনের লক্ষ্যে ১০০ মিলিয়ন ডলার অনুদান দিয়েছেন। দুটি অলাভজনক সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানে এই অনুদান দেয়া হয়। তবে যুক্তরাষ্ট্র থেকে গৃহহীন মানুষের সংখ্যা শুন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে তারা মোট ২শ কোটি ডলার অনুদানের অঙ্গীকার করেছেন।

এদিকে ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গের স¤পদমূল্য আশঙ্কাজনকভাবে কমেছে। গত জুলাই মাস থেকে তার স¤পদমূল্য ৩৪ বিলিয়ন ডলার কমে ৫২ বিলিয়ন ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে। এতে জুকারবার্গ বিশ্বের সপ্তম বৃহৎ ধনীর তালিকায় নাম লিখিয়েছেন। চলতি বছর একাধিক কেলংকারিতে কমেছে ফেসবুকের বাজারদর। যার মধ্যে ঘৃণামূলক তথ্য প্রচার, মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ, ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির মতো আলোচিত বিষয় রয়েছে। যা চলতি বছরের অধিকাংশ সময় আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রধান প্রধান শিরোনামের অংশ হয়। জুলাই মাসের পর ফেসবুক তাদের মোট বাজারমূল্যের ৪০ শতাংশ হারিয়ে বর্তমানে প্রতিটি শেয়ার ১৩০ ডলারে বিক্রি করছে। এছাড়াও, এই সকল ইস্যুতে কো¤পানিটির একাধিক নির্বাহীর পদত্যাগেও প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা সক্ষমতা নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মাঝে অনাস্থার সৃষ্টি হয়। তবে এই সকল সংকটের মুখে নিজেদের জনপ্রিয়তা হ্রাস মোকাবেলা করতে জনহিতকর সামাজিক কাজে ২১৪ মিলিয়ন ডলার অনুদান দিয়েছেন মার্ক জুকারবার্গ ও তার স্ত্রী প্রিসিলা চ্যান।

অন্যদিকে মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের স¤পদমূল্য ৫ বিলিয়ন ডলার কমেছে। তিনি এখনো প্রতিষ্ঠানটির ১ শতাংশ শেয়ারের মালিক। ফলে তার মোট স¤পদের পরিমাণ ৯৫ বিলিয়ন ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে। ব্লুমবার্গ জানায়, স¤পদমূল্য কমলেও এখনো তিনি বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনীর অবস্থান ধরে রেখেছেন। এদিকে বিশ্বের অপর শীর্ষ ধনী ও বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেট ধনীদের তালিকায় তৃতীয় অবস্থান ধরে রেখেছেন। নিজ কো¤পানি বার্কশায়ার হ্যাথওয়ের শীর্ষ বিনিয়োগকারী তিনি। ফেব্রুয়ারি মাসের মোট স¤পদ ৯৩ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার থেকে তার স¤পদেরমূল্য মাত্র ৪ বিলিয়ন ডলার কমেছে। বার্কশায়ার হ্যাথওয়ে অ্যাপলের সবচাইতে বেশি শেয়ার কিনেছে। বর্তমানে যা তাদের শীর্ষ বাজারমূল্য থেকে ২৩ শতাংশ পর্যন্ত কমেছে। এছাড়াও গুগুলের শীর্ষ দুই নির্বাহী ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন যৌথভাবে ২০ বিলিয়ন ডলারের স¤পদমূল্য হারিয়েছেন। গত জুলাইয়ের পর কো¤পানিটির শেয়ারের দর ২০ শতাংশ কমলে তাদের স¤পদমূল্যে তার নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। সিএনএন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ