প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জনসমর্থন দেখে সরকার দিশেহারা: রিজভী

শিমুল মাহমুদ: বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বিএনপি’র অনুকুলে ব্যাপক জনসমর্থন দেখে সরকার দিশেহারা। তাই তৃণমূল নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা ও গ্রেফতার শেষে এবার বিএনপি’র জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দকে মিথ্যা ম মামলায় গ্রেফতার শুরু করেছে।
 মঙ্গলবার রাতে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয়ভ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
রিজভী বলেন, সরকার বানোয়াট মামলা, গ্রেফতার ও সাজা মধ্য দিয়ে নতুন পন্থা খুজছে, এরই অংশ হিসেবে বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বিশিষ্ট আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেয়ার পর তাকে বাসা থেকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আটক করে নিয়ে যায়।
বিএনপির এ নেতা বলেন,ব্যারিস্টার রফিক গুরুতর অসুস্থ, নানা ব্যাধিতে আক্রান্ত। তিনি খুব সীমিতভাবে চলাফেরা করেন। এমতাবস্থায় তাকে সাজা দিয়ে কারাগারে আটক সরকারের কুৎসিত মনেরই বহি:প্রকাশ।
বিএনপির সিনিয়র  যুগ্ম মহাসচিব বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরকারের ইতিবাচক কোন পরিবর্তন ঘটেনি। সরকারের মনোভাব প্রতিশোধ ও প্রতিহিংসাপরায়ণ বিরোধী দলের ওপর জুলুম, অত্যাচার, দমন-পীড়ণ, মামলা-হামলা, গ্রেফতারের নারকীয় ঘটনা দিনকে দিন চরম দূর্বিষহ হয়ে উঠেছে।
রিজভী বলেন,তফশীল ঘোষনার পর আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক এই ধরণের ঘটনা শুধুমাত্র নির্বাচনী আচরণবিধিরই লঙ্ঘন নয়, বরং সরকারের আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশন যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য করতে চায় না, সেটি আরও স্পষ্ট হলো।
তিনি ববলেন, আমি অবিলম্বে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও সাজা প্রত্যাহার করে বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার নি:শর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ