প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে আয়কর মেলার সাতদিনে সোয়া আট কোটি টাকার কর আদায়

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল : নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলে সাত দিনব্যাপী কর মেলার শেষদিনে ছিলো উপচে পড়া ভীড়। সোমবার মেলার শেষদিনেও আয়কর প্রদানের পাশাপাশি নানা বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে সেবা গ্রহিতাদের। যদিও বিগত সময়ের থেকে এবারে মেলার শেষের দিকে করদাতা ও রিটার্ন দাখিলকারীদের উপস্থিতি ছিলো লক্ষ্যনীয়।
তারই ধারবাহিকতায় এ বছর মেলায় গত বছরের চেয়ে সেবাগ্রহণকারী করদাতার সংখ্যার পাশাপাশি বেড়েছে প্রাপ্ত রিটার্ন আদায়কৃত আয়করের পরিমাণ। গত বছরের চেয়ে এ বছর ৩২ হাজার বেশি করদাতা মেলা থেকে সেবাগ্রহণ করেছেন। এছাড়া গত বছরের চেয়ে এবছর সাত হাজার ৩৯৭টি রিটার্ন এবং এক কোটি ৬২ লাখ ৬৪ হাজার ৭০৫ টাকার বেশি কর আদায় হয়েছে।

সপ্তাহব্যাপী মেলার শেষদিন সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভাগীয় শহর বরিশাল কর অঞ্চলের নবম বারের মতো নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলসহ বিভাগের ছয় জেলার ২২টি সার্কেলে (জেলা-উপজেলায়) এক লাখ ৩৫ হাজার ৮২৯ জন সেবা গ্রহন ও ১৮ হাজার ৩৬১ জন রিটার্ন জমা দিয়েছেন। এবার মেলা থেকে আট কোটি ৩২ লাখ ৯৮ হাজার ৮৮৭ টাকার কর আদায় হয়েছে। অপরদিকে নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৮৬৯ জন। গতবছর মেলায় বিভাগীয় শহর বরিশালসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় ছয় কোটি ৭০ লাখ ৩৪ হাজার ১৮২ টাকার কর আদায় হয়েছিলো। রিটার্ন জমা দিয়েছিলেন ১০ হাজার ৯৬৪ জন করদাতা, আর নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছিলেন ৯৫১ জন। পাশাপাশি মেলা থেকে এক লাখ ৩ হাজার ৮০৮ জন সেবা গ্রহণ করেছিলেন।

সোমবার রাতে বরিশাল কর অঞ্চলের উপ-কর কমিশনার (প্রশাসন) মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রতিদিন মেলায় করদাতাদের উপচেপড়া ভিড় ছিলো। তাছাড়া গতবারের চেয়ে এবার আয়কর দাতারাও অনেক সচেতন হয়েছেন। গোটা বরিশালে মেলার প্র১থম দিনে ৫৫ লাখ ৫৪ হাজার ৩৫৬ টাকা কর আদায় করা হয়েছে। পাশাপাশি রিটার্ন জমা দিয়েছেন এক হাজার ৩৩৮ জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৮৫ জন। সেবাগ্রহণ করেছেন তিন হাজার ২০৮জন। দ্বিতীয় দিনে ৫৯ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৭ টাকা কর আদায় হয়েছে। মেলায় রিটার্ন জমা দিয়েছেন এক হাজার ৩৪৫ জন করদাতা। নতুন ই- টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১১৬জন। সেবা নিয়েছেন ১২ হাজার ৩৪১ জন। তৃতীয় দিনে ৯৫ লাখ ১৩ হাজার ৪৬৮ টাকা কর আদায় হয়েছে। রিটার্ন জমা দিয়েছেন দুই হাজার ২২৯ জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১১৮ জন ও সেবাগ্রহণ করেছেন ২৩ হাজার ৮৬৩ জন। চতুর্থ দিনে ৮০ লাখ নয় হাজার ৩৭১ টাকা কর আদায় ও রিটার্ন জমা দিয়েছেন দুই হাজার ৪৪৪ জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৫০ জন ও সেবাগ্রহণ করেছে ১৬ হাজার ৪৩৭জন। পঞ্চম দিনে এক কোটি ১৯ লাখ ১৮ হাজার ২৪ টাকা কর আদায় ও রিটার্ন জমা দিয়েছেন দুই হাজার ৮৮২ জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১০৮জন এবং সেবাগ্রহণ করেছে ১৯ হাজার ৪৩৪জন। ষষ্ঠ দিনে এক কোটি ৫০লাখ ২৩ হাজার ৮৫৫ টাকা কর আদায় ও রিটার্ন জমা দিয়েছেন তিন হাজার ৮৪৭জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১৮০জন। সেবাগ্রহণ করেছে ২৪ হাজার ৭২৫জন। সপ্তম দিনে অর্থাৎ মেলার শেষদিনে সবে থেকে বেশি দুই কোটি ৭৩ লাখ ২৩ হাজার ৬২৬টাকা কর আদায় হয়েছে। রিটার্ন জমা দিয়েছেন চার হাজার ২৭৬জন করদাতা। নতুন ই-টিআইএন এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ২১২জন। সেবাগ্রহণ করেছে ৩৫ হাজার ৮২১জন।
অপরদিকে বিভাগের মধ্যে বরিশাল নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হল ভ্যানুতে সর্বোচ্চ দুই কোটি ৩৩ লাখ ৬৬ হাজার ৪৯২ টাকার কর আদায় হয়েছে। এখান থেকে ২৮ হাজার ৮৭০জন সেবাগ্রহণ করেছেন এবং দুই হাজার ৭২৭টি রিটার্ন জমা পরেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ নভেম্বর (মঙ্গলবার) থেকে বরিশাল নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলে শুরু হওয়া সাত দিনব্যাপী আয়কর মেলা শুরু হয়। যা চলে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেলে পাঁচটা পর্যন্ত। মেলার শেষদিনে টাউন হলে পর্যাপ্তস্থান সংকুলন না থাকায় অনেক করদাতা ও রিটার্ন দাখিলকারীরা বাহিরের মাঠে বসে তাদের ফরম পুরন করেছেন। করদাতারা আগামীতে আরও বড়স্থানে দিন বৃদ্ধি করে আয়কর মেলার আয়োজন করার দাবী করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ