Skip to main content

আদালত যা বলেনি তার অপব্যাখ্যা করছে আ.লীগ : কায়সার কামাল

হ্যাপি আক্তার : বিএনপির আইন সম্পাদক ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেছেন, এমপি হওয়ার জন্য যারা ইন্টারভিউ দিতে আসছেন তাদের সাথে কথা বলছেন তারেক রহমান। যমুনা টেলিভিশনের ‘রাজনীতি’ টকশোতে অংশ নিয়ে তিনি বলেন, তারেক রহমানের সাথে সাক্ষাতের বিষয়টি আমাদের দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটা তো কোথাও পাবলিশ বা সম্প্রচার করা হচ্ছে না। তবে আদালত যা বলে নাই তার অপব্যাখ্যা করছে আওয়ামী লীগ। কায়সার কামাল বলেন, আইন অনুসরণ করে তারেক রহমানকে দন্ডিত করা হয়নি। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ, প্রত্যেকটি অভিযোগই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রণোদিত হয়ে অভিযোগগুলো আনা হয়েছে। এবং রাজনৈতিক বিবেচনায় দন্ডাদেশ দিয়েছে, যা দেশের মানুষ মানে না। আসন্ন নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়ার অংশ গ্রহণের কথা উল্লেখ করে কায়সার কামাল বলেন, নির্বাচনের বেগম খালেদা জিয়া অংশ নিবেন কিনা সে বিষয়টিতে কোনো ধরনের প্রশ্নবোধক চিহ্ন আসার কথা না। আর্টিকেলের ৬৬-এতে স্পষ্ট ভাষায় বলা আছে, কে নির্বাচন করতে পরবে আর কে পারবে না। আইন, বিচার ও নির্বাচন বিভাগকে যদি প্রভাবিত করা না হয়, আইন যদি তার নিজের গতিতে চলে তাহলে বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচন করবেন। তার সাথে নির্বাচন যদি নিরপেক্ষ হয় তাহলে তিনি কারাগার থেকে বের হয়ে আসবেন। তিনি বলেন, ২০১৫ সালে বেগম খালেদা জিয়া যখন কার্যত গৃহবন্দি ছিলেন তখন তারেক রহমান দেশে-বিদেশে নেতাকর্মীদের সংগঠিত করার কাজ শুরু করেন। এতে নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত হয়েছিলো। তখন আওয়ামী ঘরোনার কিছু আইনজীবী পিআইএল দায়ের করে। সেখানে পার্টিকে যুক্ত না করে শুধু তারেক রহমানকে যুক্ত করা হয়। একতরফাভাবে শুনানি করা হয়েছিলো। তিনি আরো বলেন, ১৫৪ জন্য অনির্বাচিত এমপি নিয়ে বর্তমানে গায়ের জোরে এই সরকার দেশ চালাচ্ছে। কোন নৈতিকতায় বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আছেন। এই কোন ধরণের নৈতিকতা।

অন্যান্য সংবাদ