প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লবিস্ট না থাকলে কোনো দেশের ভালো-মন্দ জানাবে কীভাবে : আফসান চৌধুরী

তানজিনা তানিন : নিজেদের প্রয়োজনে ও সমর্থন বাড়ানোর জন্য ক্ষমতাবানদের কাছে লবিং করা হয়। সকল রাজনৈতিক দল আগে করেছে, এখনও করছে। এটা খুবই সাধারণ ঘটনা। সব দেশে, সব সময়ই প্রয়োজন অনুযায়ী লবিং করা হয় বলে মন্তব্য করেন গবেষক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক আফসান চৌধুরী।

তিনি আরও বলেন, অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তি এটাকে ইস্যু করতে চাচ্ছেন, আসলে এটা কোনো ইস্যু না। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, গণমাধ্যমের কাছে ধরনা দেওয়া হয় জনমত তৈরি করার জন্য। আর বিদেশি শক্তি ব্যবহার করার জন্য লবিস্ট নিয়োগ করা হয়। বিশ্বের সব দেশই অন্য দেশের সমর্থন ও সাহায্যের জন্য লবিং করে থাকে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই ধরনের স্বাভাবিক ঘটনাকে বিশেষ ইস্যুতে পরিণত করতে চাচ্ছেন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ।

আফসান চৌধুরী বলেন, শুধু বাংলাদেশ নয়, সব দেশই বিদেশি শক্তিশালী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সাহায্য চায়। যেকোনো সমস্যা সমাধানে শক্তিশালী দেশে লবিস্ট নিয়োগ করা খুবই স্বাভাবিক। যুক্তরাষ্ট্রও লবিস্ট নিয়োগ করে বাংলাদেশে। লবিয়স্ট না থাকলে কোনো দেশের ভালো-মন্দ জানাবে কীভাবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের অসংখ্য লবিস্ট নিয়োগ রয়েছে ভারতে। বাংলাদেশেও ভারতীয় লবিস্টের অভাব নেই। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতসহ অন্যান্য দেশে লবিং না করলে দেশের পরিস্থিতি জানানো ও জনমত তৈরি করা সম্ভব হতো না। আমরা অন্য শক্তিকে ব্যবহার করি নিজেদের প্রয়োজন মেটানো ও সমস্যা সমাধানের জন্য। এটা নিয়ে আলোচনার কিছু নেই বলে তিনি মনে করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ