প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুমিল্লার ডাকাতিয়া নদীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু ও মাটি উত্তোনল

মাহফুজ নান্টু, কুমিল্লা : কুমিল্লার নাঙ্গলকোট ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ডাকাতিয়া নদীর চিলপাড়া ব্রীজ সংলগ্ন অংশে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন ও মাটি কাটা চলছে। নদী থেকে এসব বালি ও মাটি উত্তোলনের ফলে নদী হারাচ্ছে তার স্বাভাবিক গতিপথ।

যদিও ২০১০ সালের বালু মহাল আইনে, বিপণনের উদ্দেশ্যে কোনো উন্মুক্ত স্থান, চা-বাগান ছাড়া নদীর তলদেশ থেকে বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না মর্মে নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

সরেজমিন ঘুরে ও স্থানীয়দেও সাথে কথা বলে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ডাকাতিয়া নদী থেকে অবৈধভাবে মাটি কাটা ও বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে এভাবে ডাকাতিয়া নদী থেকে মাটি কাটা ও বালি উত্তোলনের ফলে নদীর পাশে ফসলী জমি হুমকির মুখে পড়ছে। ক্ষতির আশংকা থেকেই ইতিপূর্বে স্থানীয় কয়েকজন বালু উত্তোলন বন্ধের জন্য চৌদ্দগ্রাম ও নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা চাওয়া হয় বলে জানান স্থানীয়রা।

সরকারী দলের নেতাদেও নাম ভাঙ্গিয়ে নদী থেকে মাটি কাটা ও বালু উত্তোলনের অভিযোগ স্থানীয়দের। ডাকাতিয়া নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনকারীদের একজন নাঙ্গলকোট উপজেলার ডালুয়া ইউনিয়নের পুঁটিজলা গ্রামের হুমায়ন মিয়া। কথা হয় হুমায়ন মিয়ার সাথে। দীর্ঘদিন ধরে তার ড্রেজার দিয়ে বালু ও মাটি উত্তোলনের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি আরও জানান, ‘প্রশাসনিক ঝামেলার কারনে আজ সোমবার মেশিন বন্ধ রয়েছে’।

অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন ও মাটির কাটার ফলে ডাকাতিয়া নদী তার স্বাভাবিক গতিপথ হারাচ্ছে। আর কারনে ফসলী জমিসহ পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংকা বাড়ছে। এমন সমস্যা সমাধানের বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) দীপন দেবনাথ জানান, ডাকাতিয়া নদীর বেশ কয়েকটি অংশে ইতিপূর্বেও ড্রেজার মেশিনের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালিত হয়েছে। চিলপাড়া ব্রীজ সংলগ্ন অংশে যারা বালু উত্তোলন করছে তাদেও বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ