Skip to main content

সৌদির সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক চাইবে না মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র : আব্দুল্লাহ  হেল কাফী

তানজিনা তানিন : সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগজি হত্যার সঙ্গে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স  মোহাম্মদ বিন সালমান জড়িত বলে জানিয়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। এ প্রসঙ্গে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আব্দুল্লাহ হেল কাফী বলেন, এই নৃশংস হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িতদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে খুঁজে বের করা হোক। এমনই প্রত্যাশা তার। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, এই ঘটনায় আমেরিকা ও সৌদির সম্পর্কে কোনো ভাটা পড়বে না। এখন আমেরিকা যে বিরোধিতা করছে তা বৈরি সম্পর্কের চিহ্ন নয় বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন, সৌদির সাথে আমেরিকার যে সম্পর্ক ছিলো তা অটুট থাকবে। কারণ আমেরিকা কখনোই চাইবে না সৌদি আরব রাশিয়া বা চীনের দিকে ঝুঁকে পড়–ক। রাশিয়া বা চায়নার সাথে সৌদির বাণিজ্যিক সম্পর্ক গড়ে উঠলে, তা আমেরিকার জন্য হুমকির কারণ হতে পারে। তাই তারা সমঝোতার সম্পর্ক বজায় রাখবে বলেই ধারণা করছেন তিনি। ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে জানায়, সিআইএ বেশ কয়েকটি সূত্র ও স্পর্শকাতর কিছু নথি ঘেঁটে বিন সালমানের জড়িত থাকার বিষয়ে তদন্ত শেষ করেছে। বিন সালমানের নির্দেশনায় জামাল খাসোগজিকে হত্যা করার বিষয়ে সিআইএ যেমন দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তেমনি মার্কিন কর্মকর্তাদেরও এর ওপর আত্মবিশ্বাস রয়েছে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ১৭ তারিখ পাপুয়া নিউ গিনিতে এক সম্মেলনে বলেছেন, ‘এই হত্যার জন্য যারা দায়ী তাদের সবাইকে এর দায় নিতে বাধ্য করতে যুক্তরাষ্ট্র দৃঢ়প্রতিজ্ঞ’। বিন সালমানের আদেশেই খাসোগজিকে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন ক্রাউন প্রিন্সের ভাই খালিদ বিন সালমান। খালিদের ফোন কলের বিষয়টিও সিআইএ নিশ্চিত হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।  

অন্যান্য সংবাদ