প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মৌলভীবাজার-৪ আসনে কে হচ্ছে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ?

সাদিকুর রহমান সামু, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল) আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থীতা এখনও চুড়ান্ত হয়নি। এ আসনের কে হচ্ছে আওয়ামীলীগের পার্থী? এ নিয়ে চলছে স্থানীয় নেতাকর্মী ও ভোটারদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা। মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল) আসনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ৬ জন প্রার্থী।

তারা হলেন সাবেক পাঁচ বারের এমপি সাবেক চিফ হুইপ ও সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ,কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান ও শ্রীীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার ধর, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আব্দুল আহাদ চৌধুরী, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. এ এস এম আজাদুর রহমান,মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক প্রার্থী হতে চালিয়ে যাচ্ছেন জোর প্রচেষ্ঠা।

এদিকে গত ১৪ নভেম্বর গণ ভবনে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহকারী সবাইকে নিয়ে দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎ শেষে ৬ প্রার্থীই চুড়ান্ত তালিকায় নাম প্রকাশের অপেক্ষা রয়েছেন। এই ফাঁকে নির্বাচনী এলাকায় অধ্যাপক রফিকুর রহমানের প্রার্থীতা প্রায় নিশ্চিত দাবি করে তার সমর্থক কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান সিদ্দেক আলীর নেতৃত্বে ব্যাপক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন।

এদিকে অন্য প্রার্থী শনিবার সকালে বর্তমান সাংসদ উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ. আব্দুস শহীদ সিলেটে মাজার জিয়ারত করে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। অধ্যাপক রফিক সমর্থকরা বছেন,দলীয় প্রার্থীর চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন। তারা আশাবাদী এবার মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল) আসনে দলীয় মনোনয়ন অধ্যাপক রফিকুর রহমানকে দেয়া হবে। অন্যদিকে বর্তমান সাংসদ শহীদ সমর্থকরা বলছেন, তাদের নেতা টানা ৫ বারের সাংসদ সদস্য। দক্ষতা ও অভিজ্ঞতায় তিনি সবচেয়ে এগিয়ে। ৫ বার সংসদ সদস্য থাকায় তিনি নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। দল থাকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দিবে এটি তাদরে দৃঢ় বিশ্বাস।

উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ সাংবাদিকদের বলেন,শনিবার সকালে সিলেটের দুটি বড় মাজার জিয়ারত করে সেখানে নামাজ আদায় করে নৌকার পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছি। মাজার জিয়ারত কালে সাথের গাড়ির বহর সম্পর্কে তিনি বলেন,সমর্থকরা নিজ উদ্যোগে সফরসঙ্গী হয়েছে। মাজার এলাকায়ও তিনি নিজ গাড়ি নিয়ে প্রবেশ করেছেন মাত্র। এখন দলীয় চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশ না হলেও প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা ক্যাম্প করে বাকি প্রচারণার কাজ শুরু করবেন। অন্যদিকে বাকিরা চুড়ান্ত তালিকায় তাদের নাম প্রকাশে আশাবাদী বলে দাবি করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ