প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নরসিংদী-১
`জনগণ ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে ধানের শীষের জয় নিশ্চিত’

খন্দকার শাহিন, মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি : সাবেক সংসদ সদস্য, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন আমাদের মাধবদী প্রতিনিধি খন্দকার শাহিন এর সাথে শনিবার (১৭ নভেম্বর) রাতে একান্ত সাক্ষাতকারে বলেছেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে তাদের প্রতিপক্ষ দলকে কোন সময় নিপীড়িত নির্যাতন ও মিথ্যা-মামলায় হয়রানি করা হয় নাই। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই , বিএনপি ধ্বংস করার জন্য মিথ্যা মামলা দিয়ে হাজার হাজার নেতাকর্মীদের জেলে পাঠিয়েছে। এমনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াও আজ কারাগারে। বিএনপি সরকার আমলে আওয়ামী লীগ ছিল প্রতিপক্ষ দল। তাদের কাউকে মিথ্যা মামলায় হয়রানি করা হয় নাই, হত্যা গুম করা হয় নাই। বিএনপি সরকার ছিল জনবান্ধব দল। একাদশ নির্বাচনে জনগণ ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে ধানের শীষের জয় নিশ্চিত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

খায়রুল কবির খোকনের কাছে জানতে চাওয়া হয় আপনি এই রাতে মাধবদীতে কেন?

তিনি বলেন, নরসিংদী-০১ নির্বাচনী এলাকা মাধবদীর বিশিষ্ট সাংবাদিক দি বাংলাদেশ টুডে ও দৈনিক সকালের খবর পত্রিকার নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি মো: সেলিম মিয়া শারীরিক ভাবে অসুস্থ রয়েছেন তাকে ও নরসিংদী সদর থানা যুবদলের সভাপতি আলহাজ্ব ছাদেকুর রহমান ভূইয়া, ছাত্র নেতা মামুন মিয়াকে দেখতে আসা হয়। এসময় নুরালাপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সাদেক গাজী, কাঁঠালিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মোহাম্মদ ইছাক মিয়াসহ অঙ্গ-সংগঠনের নেতা কর্মীরা সঙ্গে ছিলেন।
একাদশ জতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মাধবদীবাসীর প্রতি আপনার আস্থা কতটুক?

তিনি বলেন, নরসিংদীর দক্ষিণাঞ্চল মাধবদী হলো বিএনপির ভোট ব্যাংক। মাধবদীবাসী আজও বিএনপিকে ভালোবাসে। তিনি শতভাগ নিশ্চিত তাদের মাঝে অতিতের গ্লানি মুছে নির্বাচনী হাওয়া বইছে। শহীদ জিয়ার ধানের শীষ প্রেমিকদের জোয়ার উঠেছে নরসিংদী-১ আসনে, তা নির্বাচনি ব্যালটে প্রমাণ করবে মাধবদীবাসী।

আপনি জেলা বিএনপির সভাপতি, দল থেকে নরসিংদীর ৫টি আসনে কতজন মনোনয়ন প্রত্যাশী?

তিনি বলেন, বিএনপি হলো বৃহত্তর একটি রাজনৈতিক দল, এখানে একাদিক মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছে এখনো পর্যন্ত তা নির্ণয় করা হয়নি। তবে দু একদিনের মধ্যে কেদ্রীয় ভাবে নরসিংদীতে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা চুরান্ত হতে পারে।
নির্বাচনকে ঘিরে নরসিংদীতে বিএনপির নেতাকর্মীদের হালচাল কি?

তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিবে বিএনপি। এ আওয়াজ শুনেই মাঠে-ঘাটে বাজার বন্দরে বিএনপির প্রচারণা ছিলো চোখে পরার মতো। তবে তফসিল ঘোষনার পর বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু হয়। তা উৎসব মূখর কর্মসূচি হিসেবে নিয়েছে বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। নির্বাচন কমিশনের সকল নির্দেশনা মেনে মাঠে রয়েছেন বিএনপি। কোন নির্বাচনি আইন লঙ্গন না করার জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে নেতাকর্মীদের মাঝে। নির্বাচনে ভোট যুদ্ধে যাবে বিএনপি তার সকল প্রস্তুতি শেষ প্রান্তে। এদিকে সরকারের নির্দেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের আটকের মহোৎসবে নেমেছে পুলিশ। সারাদেশের ন্যায় নরসিংদীর মাধবদীতেও বিএনপির কর্মীদের মাঝে আটক আতংক বিরাজ করছে।
পরিশেষে তিনি বলেন, নির্বাচনে আমার ভোট আমি দিবো যাকে খুশি তাকে দিবো। নৌকা হউক ধানের শীষ অথবা লাঙ্গল হউক। জনগণকে ভোটার অধিকার প্রয়োগ করার সুযোগ করে দিতে হবে। সেইসাথে একজনের ভোট যেন আরেক জন না দিতে পারে, তার প্রতি ভোটাদের সোচ্চার হওয়া জন্য আহ্বান জানান তিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ