প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার শুরু

শিমুল মাহমুদ: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে মোট ৪ হাজার ৫৮০টি। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শুরু আজ। রোববার সকাল ৯টায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এই সাক্ষাতকার নেয়া হচ্ছে। দলের পার্লামেন্টারি বোর্ড মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নিচ্ছেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরাই এ বোর্ডের সদস্য।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে বন্দি এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডনে অবস্থান করার কারণে দলের মহাসচিব এই দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রতি বছর বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া পার্লামেন্টারি বোর্ডে সভাপতিত্ব করলেও এবারই প্রথম সাবেক প্রধানমন্ত্রী দলের চেয়ারপার্সন কারান্তরীণ হওয়ার পার্লামেন্টারি বোর্ডে সভাপতি করা হয়েছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে।

এছাড়াও পার্লামেন্টারি বোর্ড মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার উপস্থিত আছেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। সূচি অনুযায়ী, বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ১৯ নভেম্বর (সোমবার) খুলনা বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার হবে সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত এবং বিকাল ৩টা থেকে শুরু হবে বরিশাল বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার।

২০ নভেম্বর মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বিভাগের সাক্ষাতকার হবে সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত এবং বিকাল ৩টা থেকে কুমিল্লা ও সিলেট বিভাগের সাক্ষাতকার শুরু হবে। ২১ নভেম্বর বুধবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত হবে ময়মনসিংহ ও ফরিদপুর বিভাগের এবং বিকাল ৩টা থেকে ঢাকা বিভাগের সাক্ষাতকার শুরু হবে। মনোনয়নপ্রত্যাশীদের এই সাক্ষাতকারের সময় অনুসারীদের আনতে নিষেধ করেছে বিএনপি। একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর গত ১২ নভেম্বর থেকে শুরু করে শুক্রবার পর্যন্ত ধানের শীষ প্রতীক পেতে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কাছে ফরম বিক্রি করে বিএনপি।

প্রথম দিনে সোমবার আট বিভাগ মিলিয়ে মোট ১৩২৬টি মনোনয়ন ফরম, দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার বিক্রি হয় ১৮৯৬টি ফরম, তৃতীয় দিনে ৪৮৮টি, চতুর্থ দিনে ৪০২টি এবং শেষ দিনে ৪৬৮টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়। এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দল থেকে বলা হয়, বিভাগভিত্তিক সাক্ষাতকারের সময়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা তাদের সমর্থকদের সঙ্গে আনতে পারবেন না। এ নির্দেশনা না মানলে তা প্রার্থীর অসদাচরণ হিসেবে গণ্য হবে।

সাক্ষাতকারের সময়ে সংশ্লিষ্ট মহানগর ও জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, সংশ্লিষ্ট বিভাগের সাংগঠনিক ও সহ সাংগঠনিক সম্পাদকরা উপস্থিত থাকবেন। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের আবেদন ফরম জমার রশিদ সাক্ষাতকারের সময় সঙ্গে আনতে বলা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ