প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচন মনোনয়ন যেন অর্থনৈতিক পুঁজির কাছে হেরে না যায় : রাশেদা রওনক খান

হ্যাপি আক্তার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রাশেদা রওনক খান বলেছেন, আসন্ন নির্বাচনে মনোনয়ন কারা পাবেন সেটা এখন একটি বড় সমস্যা। যমুনা টেলিভিশনের ‘২৪ ঘন্টা’ টকশোতে তিনি বলেন, যাদের হাতে টাকা আছে তারা মনোনয়ন পত্র পাবেন, নাকি যারা জনগণের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন তারা মনোনয়ন পাবেন? এই জায়গাটিতে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে প্রধান দু’দলকেই। কারণ দল চালাতে গেলে টাকাও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সে দিক থেকে টাকার বিষয়টি চলে আসবে। কারো কাছে সামাজিক পুঁজি আছে, আবার কারো কাছে অর্থনৈতিক পুঁজি আছে। যাদের কাছে সামাজিক পুঁজি আছে তারা যেন অর্থনৈতিক পুঁজির কাছে হেরে না যায় সেটা দেখার বিষয় দলগুলোর। তবে এটি যদি না হয় তাহলে রাজনৈতিক চরিত্র সামনে আরো ভয়াবহ হবে।

রাশেদা রওনক বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নের জন্য বিপুল পরিমাণে মনোনয়ন পত্র বিক্রি হয়েছে এর নেপথ্যে যে বার্তা রয়েছে সেটা হলো রাজনীতির যে মূল চরিত্র সেটা এখন আর নেই। রাজনীতি এখন হয়েগেছে লোভনীয়। বর্তমানে যার হাতে টাকা আছে, যারা বিনিয়োগ করতে পারবেন তারাই নির্বাচনে যাচ্ছেন। সামনে হয়তো এই বিষয়টি আরো বেশি দেখা যাবে। তবে রাজনীতি এমন ছিলো না। রাজনীতি ছিলো জনগণের সেবা করা।

রাজনীতিতে তারকাদের অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সকল মানুষেরই নিজ নিজ পছন্দের জায়গা আছে। সব মানুষ যদি আসতে পারে তাহলে তারকারা কেন আসতে পারবে না। রাজনীতিতে তারকাদের যোগদানের বিষয়টি পজেটিভ হিসে দেখছি। তবে শুধুমাত্র তারকাখ্যাতি নিয়ে রাজনীতি করলে হবে না। তাদের মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। সকল দলের নেতা-কর্মীরা যেভাবে সাধারণ মানুষের কাছে যাচ্ছেন, সে রাজনীতি তারকাদেরও করতে হবে। নয় তো জনগণ একবার ভোট দিলেও পরবর্তীতে নাও দিতে পারে।
তিনি বলেন, রাজনীতি এখন এমন পর্যায়ে চলে গেছে যে আপনার হাতে টাকা থাকলে বিশেষ একটি পর্যায়ে চলে যাবেন। আবার একটি পর্যায়ে গিয়ে আপনি টাকা তৈরিও করতে পারবেন। সম্পূর্ণ বিষয়টি বিশেষ সার্কেলে পরিণত হয়েছে। তবে এখনো অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ আছেন যারা সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ